Connect with us

আন্তর্জাতিক

বিশ্বকাপ বাছাই প্রস্তুতিঃ ভূটানকে ৪-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারালো বাংলাদেশ

৩ অক্টোবর ভুটানের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রীতি ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ। এরপর বিশ্বকাপ বাছাইয়ে প্রতিপক্ষ কাতার।

প্রকাশিত

তারিখ

বিশ্বকাপ বাছাই প্রস্তুতিঃ ভূটানকে ৪-১ গোলের বড় ব্যবধানে হারালো বাংলাদেশ
বাংলাদেশের হয়ে দুটি গোল করেছেন নাবিব নেওয়াজ জীবন। ছবিঃ বাফুফে

প্রীতি ম্যাচে বাংলাদেশের চাওয়া ছিল দুইটি। প্রথমটি জেমি ডের। বাংলাদেশ যেনো ভুটানকে হারিয়ে হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পায়, কাটে স্ট্রাইকারদের গোলখরা। দ্বিতীয়টি অবশ্যই বাফুফের। অল্প শক্তির দলের বিপক্ষে খেলে র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি করা।

দুটো ইচ্ছেই কাল পূর্ণ হয়েছে। ভুটানকে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ৪-১ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। দুটি গোল করেছেন নাবিব নেওয়াজ জীবন, একটি করে গোল করেছেন রবিউল ও বিপ্লু।

চার গোলে জয় সাধারণত এমন কিছুই না আসলে। কিন্তু সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স দেখলে এ কথা বলার আসলে উপায় নেই। আন্তর্জাতিক ম্যাচে যেখানে গোলের জন্য হাপিত্যেশ করতে হয় দেশের ফরোয়ার্ডদের। সেখানে কোনো দলের বিপক্ষে চার গোল বড় স্বস্তিরই।

বাংলাদেশ শেষ কবে ওপেন প্লেতে গোল পেয়েছিল তা বোধহয় খেলোয়াড়দের নিজেদেরও মনে নেই, ভুটানের বিপক্ষে চার গোলের তিনটিই এলো এভাবে। স্ট্রাইকারদের গোলখরাও মিটল। তাই প্রাপ্তির খাতায় আছে অনেক কিছুই।

সারাদিন টিপটিপ করে চলা বৃষ্টি সন্ধ্যা নাগাদ কমে এসেছিল একটু। আগের কয়েকদিন বৃষ্টিতে আর অনূর্ধ্ব-১৮ এর খেলায় মাঠের অবস্থা আগে থেকেই ছিল নাজুক। তবে কাদা মাঠে বাংলাদেশ বরাবরই ভাল খেলে।

তাই শুরুটা অনুমিতভাবেই ভালো করেছিল বাংলাদেশ। শেষ আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলা একাদশে একটি পরিবর্তন এনে দল সাজিয়েছিল বাংলাদেশ। চোটের কারণে সেন্টারব্যাক টুটুল হোসেন বাদশার স্থলে রিয়াদুল হাসান।

আজই জাতীয় দলের জার্সিতে অভিষেক হয়েছে সাইফ স্পোর্টিংয়ের এই ডিফেন্ডারের। বড় জয়ে অভিষেকটা হয়ে থাকল স্মরণীয়। অবশ্য আজ তাকে তেমন কোন পরীক্ষা দিতে হয়নি ভুটানের আক্রমণভাগের সামনে।

ছোট ছোট পাসের সাথে গতির মিশেলে দ্রুতগতির ফুটবল খেলে অভ্যস্ত ভুটানিজরা আজ কাদার মাঠে খেই হারিয়েছে বারবার। সাধারণত তারা টার্ফের মাঠে খেলে অভ্যস্ত।

ফরমেশনেও এসেছে কিছুটা বদল। জেমি ডে ৪-২-৩-১ ফরমেশনে জীবনকে নাম্বার নাইন থেকে সরিয়ে এনে আজ নাম্বার ১০ পজিশনে খেলিয়েছেন। আবাহনী লিমিটেডের হয়ে এই পজিশনে খেলেই শেষ মৌসুমে করেছিলেন ১৭ গোল।

আজ জাতীয় দলের জার্সিতে প্রথমবারের মতো মূল স্ট্রাইকারের পেছন থেকে খেলেই বলতে গেলে খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসলেন জাতীয় দলের এই স্ট্রাইকার।

গোলের খাতা খুললেন ১২ মিনিটে। হেডে। জামালের ক্রসে গোলপোস্ট থেকে মাথা ছুঁয়ে জালে পাঠিয়েছেন। ৩৯ মিনিটে দ্বিতীয় গোলটি অনেক দিন চোখ লেগে থাকার মতন। ডান প্রান্ত থেকে ইব্রাহিমের ক্রসে দুর্দান্ত সাইড ভলিতে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন বাংলাদেশকে।

৫১ মিনিটে ভুটান ম্যাচে ফিরল সেট পিস পুঁজি করে। শেরিং দর্জি ফ্রি-কিক ফেলেছিলেন বাংলাদেশের বক্সের ভেতর। সেটা প্রথমে ফ্লিক করে তিনেলি দর্জি বাড়ান দর্জির দিকে।

দর্জি গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলামের ওপর দিয়ে বল জালে পাঠিয়ে ভুটানকে ম্যাচে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন।

৭৪ মিনিটে ৩-১ করেছেন বিপলু। সোহেল রানার পাস থেকে বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোলটি করেছেন এই উইঙ্গার। এর ৭ মিনিট পরেই বদলি রবিউলের গোলে পূর্ণ হয় এক হালি।

বাংলাদেশের নামের পাশে আজ এক হালির জায়গায় এক ডজন বা দুই হালি গোল লেখা থাকলেও অবাক হওয়ার কিছু ছিল না। জামাল, জীবন, রবিউলরা সে সুযোগ হারিয়েছেন হেলায়।

৩ অক্টোবর ভুটানের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রীতি ম্যাচ খেলতে নামবে বাংলাদেশ। এরপর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ১০ তারিখ বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ কাতার। তার পাঁচদিন পর ভারতের কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে খেলবে বাংলাদেশ।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক