Connect with us

আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশের সাথে মশকরা করা হয়েছে- জেমি ডে

ওটা কীভাবে কর্নার হয়, আমার জানা নেই। রেফারি আমাদের সঙ্গে তামাশা করলেন। আমাদের ন্যায্য গোলটা বাতিল করা হয়।

প্রকাশিত

তারিখ

বাংলাদেশের সাথে মশকরা করা হয়েছে- জেমি ডে
রেফারির এমন সিদ্ধান্তে হতাশ জেমি ডে। ছবিঃ দ্যা ডেইলি স্টার

মশকরারও তো একটা পর্যায় থাকে!

গতকাল বাংলাদেশ বনাম মালদ্বীপের ম্যাচ কেও দেখে থাকলে নিশ্চিত ভাবেই বলবেন কথাগুলো। একটি স্বাভাবিক গোলকে কি অস্বাভাবিক, বিস্ময়কর ভাবে কর্ণার বানিয়ে দেয়া যায় তা কালকের ম্যাচ না দেখলে বিশ্বাস করা কষ্ট হয়ে যেতো।

সাইড পোস্টে লেগে ফিরে আসা বল গোলমুখ থেকে জালে জড়িয়েছিলেন নাবীব নেওয়াজ জীবন। অথচ নেপালের সহকারী রেফারি দিলেন কর্নারের সংকেত।

সাইড পোস্টে লেগে ফিরে আসা বল কীভাবে কর্নার হয়, স্বাভাবিকভাবে সবার বিস্ময়ের ঘোর এখনো কাটছে না!!

দক্ষিণ এশিয়ান (এসএ) গেমসে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভুটানের কাছে হারের পর গতকাল টিকে থাকার শেষ সুযোগ ছিল বাংলাদেশের সামনে।

এ ম্যাচে মালদ্বীপকে হারাতেই হত। কিন্তু রেফারির অদ্ভুত দর্শন সিদ্ধান্তে শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন জামাল ভূঁইয়ারা।

৩০ মিনিটে আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। অথচ ২১ মিনিটে রেফারি ওই ভুল না করলে ২-০ গোলে এগিয়ে যেতে পারত বাংলাদেশ।

মালদ্বীপ আর সেখান থেকে ম্যাচে ফেরাই সম্ভব ছিল না। উল্টো মালদ্বীপের সমতাসূচক গোলটি এসেছে ৭০ মিনিটে।

বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে কোনো রাখ ঢাক না রেখেই বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে তামাশা করেছেন রেফারি।

তিনি বলেন, ‘ওটা কীভাবে কর্নার হয়, আমার জানা নেই। রেফারি আমাদের সঙ্গে তামাশা করলেন। আমাদের ন্যায্য গোলটা বাতিল করা হয়েছে।

অথচ ওই গোলটা হয়ে গেলে ২-০ গোলে এগিয়ে যেতে পারতাম আমরা। সেখান থেকে মালদ্বীপ আর ম্যাচে ফিরতে পারত না।’

সোনা জয়ের লক্ষ্য নিয়ে নেপালে গিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু প্রথম দুই ম্যাচ শেষে প্রাপ্তি মাত্র ১ পয়েন্ট।

ফাইনালে উঠতে বাংলাদেশকে পরের দুই ম্যাচে জিততেই হবে। পাশাপাশি তাকিয়ে থাকতে হবে অন্য ম্যাচগুলোর ফলের দিকে।

বাংলাদেশ কোচ কিছুটা বিস্ময়ের জন্ম দিয়ে বলছেন সোনা জয় নয়, পদক জয়ের লক্ষ্য নিয়ে নেপালে এসেছে তার দল।

তিনি বলেন,’আমি নিজেদের ফেভারিট দাবি করিনি। আপনারা আমাদের ফেভারিট বানিয়েছেন। আমি বলেছি, আমরা পদক জিততে পারলেই খুশি।

গতকাল দল বাজে খেলেছে, কিন্তু আজ আমরা ভালো খেলেছি।’

আরো যোগ করলেন ম্যাচের আগে বাংলাদেশ সংবাদমাধ্যমই নাকি ছোট করে দেখেছে মালদ্বীপকে, “আমি আগেই বলেছিলাম নেপাল ও মালদ্বীপ কঠিন পরীক্ষা হবে।

আমার মনে হয় আমাদের সংবাদমাধ্যম মালদ্বীপকে যথেষ্ট সম্মান করেনি।”

রেফারির অদ্ভুত সিদ্ধান্ত দেখুন এখানেঃ
https://www.facebook.com/jamalbhuyanofficial/videos/427196597955616/

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক