Connect with us

আন্তর্জাতিক

চিলিকে হারিয়ে তৃতীয় আর্জেন্টিনা: লাল কার্ডের বিতর্ক

চিলিকে ২-১ গোলে হারিয়ে ২০১৯ কোপা আমেরিকায় তৃতীয় হলো আর্জেন্টিনা। ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মত লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়লেন মেসি।

প্রকাশিত

তারিখ

চিলিকে হারিয়ে তৃতীয় আর্জেন্টিনা: লাল কার্ডের বিতর্ক
ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বারের মত লাল কার্ড দেখলেন লিওনেল মেসি। ছবি: এপি

২০০৫ সালে আর্জেন্টিনার হয়ে অভিষেকে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছেড়েছিলেন মেসি। ১৪ বছর পর দেখলেন দ্বিতীয়টি। সে লাল কার্ড নাটকের আগেই আর্জেন্টিনা এগিয়ে গিয়েছিল দুই গোলে, এরপর দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে এক গোল শোধ করেছিল চিলি। শেষ পর্যন্ত তাই ২-১ গোলে ম্যাচ জিতে কোপায় তৃতীয় হয়েছে আর্জেন্টিনা।

আগের দুইবারের ফাইনালিস্ট, দুইবারই চিলি জিতেছিল শিরোপা। এসব তো ছিলই, আর গত বিশ্বকাপের পর দুই দেশের ফুটবলীয় সম্পর্কেও কিছুটা টান পড়েছিল। করিন্থিয়াস অ্যারেনায় সেটা ম্যাচের শুরুতেও বুঝা যাচ্ছিল। দুই দলের খেলোয়াড়েরাই ছোটখাটো ফাউল করে প্রতিপক্ষের গতি নষ্ট করছিল। আর্জেন্টিনা এদিন একাদশে ২ টি পরিবর্তন নিয়ে নামে।

শুরু থেকেই চিলির বিপক্ষে ধারালো ছিল আর্জেন্টিনার আক্রমণ। এগিয়ে যেতে আর্জেন্টিনা সময় নিয়েছে মাত্র ১২ মিনিট। গোলের উৎস ছিলেন মেসিই। চিলির খেলোয়াড়রা প্রস্তুত ছিলেন না কেউ। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই আর্জেন্টিনার অর্ধে মিডফিল্ড লাইনের ঠিক পেছনে পাওয়া কুইক ফ্রি কিক থেকে বুদ্ধিদীপ্ত এক থ্রু পাস মেসি বাড়িয়েছিলেন সার্জিও আগুয়েরোর উদ্দেশ্যে। দুই ডিফেন্ডার ফ্রি কিকের সময় দৌড় শুরু না করায় আগুয়েরোর সামনে ছিলেন শুধু গোলরক্ষক আরিয়াস। এগিয়ে এসেও পার পাননি তিনি, আগুয়েরো কোণাকুণি ফিনিশে গোল করে আর্জেন্টিনাকে ১-০ গোলের লীড এনে দেন।

চিলি কিছুক্ষণ পর আরও চাপে পড়ে যায় অ্যালেক্সিস সানচেজকে হারিয়ে। ইনজুরি নিয়ে কিছুক্ষণ বাদেই মাঠ ছাড়তে হয় তাকে। মিডফিল্ড থেকে জিওভানি লো চেলসো পাস দিয়েছিলেন, দিবালার পেছনে ছিলেন দুই ডিফেন্ডার। ডিবক্সের ভেতরে ঢুকে, আরও একবার এগিয়ে আসা আরিয়াসের পাশ দিয়ে চিপে করা দুর্দান্ত এক গোলে আর্জেন্টিনাকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন দিবালা।

ম্যাচের তখন ৩৭ মিনিট। মেসি আর চিলি অধিনায়ক গ্যারি মেডেল দুইজনই দৌড়াচ্ছিলেন বলের পেছনে। মেডেল সামনে, পেছনে মেসি। বল সাইডলাইন অতিক্রম করেছে, চিলির গোলকিক। কিন্তু পেছন ঘুরে মেডেল তেড়ে গেলেন মেসির দিকেই। আর্জেন্টাইন অধিনায়ক প্রথম চেষ্টায় মুখ সরিয়ে গা বাঁচালেন, পরের দফায় নিজেও একটু জড়িয়ে পড়লেন। রেফারি দৌড়ে এসে সরাসরি প্রথমে মেডেলকে দেখালেন লাল কার্ড, একটু পর মেসিকেও।

ম্যাচের ৫৭ মিনিটে লো সেলসো ডিবক্সের ঠিক লাইন বরাবর জায়গায় চার্লস আরাঙ্গিজকে ফাউল করে বসলে পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। এ দফায় অবশ্য ভিএআরের সাহায্য নিয়ে সঠিক সিদ্ধান্তই দিয়েছেন তিনি। আর্তুরো ভিদাল স্পটকিক থেকে গোল করে ম্যাচে ফিরিয়ে আনেন চিলিকে। এরপর অবশ্য বাকি সময়ে তেমন একটা সুযোগ তৈরি করতে পারেনি সানচেজ বিহীন চিলি। শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে জিতেই ৩য় স্থান নিশ্চিত করে মাঠ ছেড়েছে স্কালোনির দল।

দল তৃতীয় হলেও অবশ্য সেই মেডেল নেননি মেসি।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক