Connect with us

আন্তর্জাতিক

এইবার কে ৩-১ গোলে হারিয়ে শিরোপা লড়াইয়ে টিকে রইলো রিয়াল

প্রকাশিত

তারিখ

এইবারকে ৩-১ গোলে হারালো রিয়াল মাদ্রিদ। ছবিঃ মার্কা

মার্সেলোকে নিয়ে এই মৌসুমে লিগে রিয়াল মাদ্রিদের ১৯জন ভিন্ন ভিন্ন খেলোয়াড় গোল করলেন,যা ইউরোপের সেরা ৫ লীগ মিলিয়ে সর্বোচ্চ।

করোনা বিরতি শেষে এইবারকে ৩-১ গোলে হারিয়ে যাত্রা শুরু করলো রিয়াল মাদ্রিদ।

অনেক হিসেব কিতাবের ব্যাপার ছিল এই ম্যাচ নিয়ে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রিয়ালের কোচ হিসেবে ২০০ ম্যাচের মাইলফলক ছুয়েছেন জিনেদিন জিদান।

করোনা বিরতি শেষে পুরো রিয়াল মাদ্রিদ দল কেমন খেলে তা ছিল আগ্রহের কেন্দ্রে।চ্যালেঞ্জ হিসেবে বরাবরের মতই ছিল বার্সেলোনা।

আগের রাতে মায়োর্কাকে ৪-০ গোলে হারিয়ে নিজেদের মধ্যে ব্যাবধান ৫ পয়েন্টের করে নিয়েছিলো বার্সা কিন্তু এইবারকে হারিয়ে ব্যবধান আবার ২ এ নামিয়ে আনলো রিয়াল মাদ্রিদ।

২৮ ম্যাচ শেষে শীর্ষে থাকা বার্সার পয়েন্ট ৬১ আর ২ এ থাকা রিয়ালের ৫৯।

কিন্তু জিতার পরেও রিয়াল কোচ জিদান খুব অসন্তুষ্ট ছিলেন। বিশেষ করে প্রথম অর্ধে ৩-০ তে এগিয়ে গিয়েও দ্বিতীয় অর্ধে এলোমেলো হয়ে যায় রিয়াল।

চোট কাটিয়ে ফিরেছিলেন ইডেন হ্যাজার্ড।দারুন খেলেছেন তিনি।

এইবারের বিপক্ষে পুরো ম্যাচে মাত্র ৬টি শট নিতে পেরেছে রিয়াল মাদ্রিদ এরমাঝে ৫টি ই ছিল গোলমুখী।চলতি মৌসুমে আর কোন দলের বিপক্ষে এতো কম শট নেয়নি রিয়াল।

“দ্বিতীয়ার্ধে সব কিছু কঠিন হয়ে পড়েছিল আমাদের জন্য।জানিনা খেলোয়াড়দের শারীরিক কোন ঘাটতি ছিল কিনা!প্রথমার্ধে সবকিছুই দারুন ছিল,দ্বিতীয়ার্ধে সেকারনেই আমরা হয়তো একটু ছাড় দিয়ে ফেলেছি।”

সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান রিয়াল কোচ।স্প্যানিশ পত্রিকা মার্কা জানিয়েছে ম্যাচ শেষে ড্রেসিং রুমে বকা ঝকা করেছেন কোচ।

অথচ প্রথম অর্ধ শেষে রিয়ালের জয়টা আর ও বড় হওয়ার সম্ভাবনা ছিল।

ক্সের বাম কোণ থেকে টনি ক্রুসের দারুন বাঁকানো শটে ৪ মিনিটে এগিয়ে যাওয়া। এরপর ৩০ মিনিটে রামোসের গোলে ব্যবধান দ্বিগুন।যদিও হ্যাজার্ড নিজেই গোল করতে পারতেন কিন্তু তিনি ফাঁকায় দাঁড়ানো রামোসকে দিয়েই গোল করান।

৩৭ মিনিটে  তৃতীয় গোল করেন মার্সেলো। এই গলের পর এক হাঁটু মাটিতে রেখে উদযাপনে যুক্তরাষ্ট্রের কৃ্ষ্ণাঙ্গদের অধিকারের আন্দোলনের সমর্থন জানান ব্রাজিলিয়ান লেফটব্যাক।

 

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক