Connect with us

আন্তর্জাতিক

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে নেইমারবিহীন ব্রাজিল

গত ১৩ অক্টোবর নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ব্রাজিলের ১-১ ড্র ম্যাচের শুরুর দিকে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছিলেন নেইমার।

প্রকাশিত

তারিখ

আবারো ইনজুরিতে পড়েছেন নেইমার। ছবিঃ এএস

জাতীয় দলের নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে পাওয়া চোট নেইমারকে ছিটকে দিল আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচ থেকে। পিএসজি তারকাকে বাইরে রেখে আগামী মাসের দুটি প্রীতি ম্যাচের জন্য দল ঘোষণা করেছেন ব্রাজিল কোচ তিতে। এ দুই ম্যাচের জন্য ২৩ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন ব্রাজিলিয়ান কোচ তিতে।

এছাড়া কোপা লিবার্তেদোরেসের ফাইনালের কারণে ঘরোয়া ফুটবলের অনেক তারকাকেই দলে নেননি তিতে। ফলে বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই নেয়া হয়েছে ইউরোপের ক্লাবগুলো থেকে। শুক্রবারের ঘোষিত দলে ডাক পেয়েছেন আন্তর্জাতিক ফুটবলে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা অ্যাস্টন ভিলার মিডফিল্ডার ডগলাস লুইস ও রিয়াল মাদ্রিদের টিনএজ ফরোয়ার্ড রদ্রিগো।

গত ১৩ অক্টোবর নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ব্রাজিলের ১-১ ড্র ম্যাচের শুরুর দিকে হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পেয়েছিলেন নেইমার। তাকে চার সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে বলে তখন জানিয়েছিল পিএসজি কর্তৃপক্ষ।

এ বছর এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো চোটে পড়লেন ২৭ বছর বয়সী নেইমার। জানুয়ারিতে পিএসজির হয়ে ফরাসি কাপে স্ত্রাসবুর্গের বিপক্ষে ম্যাচে ডান-পায়ের পাতার মেটাটারসাল হাড় ভেঙে আড়াই মাস মাঠের বাইরে ছিলেন। এপ্রিলে ফিরে কাতারের বিপক্ষে ব্রাজিলের প্রীতি ম্যাচে ডান গোড়ালিতে চোট পেয়ে ছিটকে যান কোপা আমেরিকা থেকে। চোটপ্রবণ নেইমার এখন পর্যন্ত ক্যারিয়ারে ছোট-বড় মিলে মোট ১৬ বার চোটে পড়েছেন।

এদিকে জাতীয় লীগ এবং নেইমারের চোটকে কাজে লাগিয়ে জাতীয় দলে প্রথমবারের মতো সুযোগ পেয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদের রদ্রিগো, অ্যাস্টন ভিলার ডগলাস লুইজ, রিয়াল বেটিসের এমারসন এবং রোমার গোলরক্ষক ড্যানিয়েল ফুজাতো। এছাড়া নিয়মিত গোলরক্ষক অ্যালিসনকেও ফেরানো হয়েছে দলে।

ব্রাজিল স্কোয়াড
গোলরক্ষক : অ্যালিসন বেকার (লিভারপুল), ড্যানিয়েল ফুজাতো (রোমা) এডারসন (ম্যানচেস্টার সিটি)।

ডিফেন্ডার : দানিলো (জুভেন্টাস), এমারসন (রিয়াল বেটিস), অ্যালেক্স সান্দ্রো (জুভেন্টাস), রেনান লোদি (অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ), এডের মিলিটাও (রিয়াল মাদ্রিদ), ফেলিপে (অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ), মারকুইনহোস (প্যারিস সেইন্ট জার্মেই), থিয়াগো সিলভা (প্যারিস সেইন্ট জার্মেই)।

মিডফিল্ডার : আর্থুর মেলো (বার্সেলোনা), ক্যাসেমিরো (রিয়াল মাদ্রিদ), ফ্যাবিনহো (লিভারপুল), লুকাস পাকুইতা (এসি মিলান), ডগলাস লুইজ (অ্যাস্টন ভিলা), কৌতিনহো (বায়ার্ন মিউনিখ)।

ফরোয়ার্ড : ডেভিড নেরেস (আয়াক্স), রবার্তো ফিরমিনো (লিভারপুল), গ্যাব্রিয়েল হেসুস (ম্যানচেস্টার সিটি), রিচার্লিসন (এভারটন), রদ্রিগো (রিয়াল মাদ্রিদ) এবং উইলিয়ান (চেলসি)।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক