Connect with us

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল)

বোল্ট আগুনে নাজেহাল চেন্নাই, ১০ উইকেটের হার!

প্রকাশিত

তারিখ

১৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে জয়ের নায়ক ট্রেন্ট বোল্ট। ছবিঃ আউটলুক ইন্ডিয়া

প্রথম স্পেলে ৩ ওভারে ৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট! ট্রেন্ট বোল্টের এমন আগুনে বোলিংয়ে নাজেহাল চেন্নাইয়ের টপ অর্ডার। এরপর ডি কক ও ইশান কিষানের অনবদ্য ১১৬ রানের পার্টনারশিপে ১০ উইকেটের জয় পায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

শারজাহ’র ব্যাটিং স্বর্গে টসে জিতে চেন্নাই সুপার কিংসকে আগে ব্যাটিংয়ে পাঠানোর মধ্যে হয়তো রহস্য ছিল।

ফলটাও হাতেনাতে পেয়েছেন নিয়মিত অধিনায়ক রোহিত শর্মার অবর্তমানে নেতৃত্ব দিতে নামা কাইরন পোলার্ড।

দুই পেসার জাসপ্রীত বুমরাহ ও ট্রেন্ট বোল্টের আগুনঝরা বোলিংয়ে মাত্র ৩ রানেই ৪টি উইকেট হারিয়ে বসে সিএসকে!

পাওয়ার প্লেতে ৫ উইকেট হারিয়ে তুলে মাত্র ২১ রান। যার তিনটিই বোল্টের, বাকি দুটি নিয়েছেন বুমরাহ!

এরপর ৪৩ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ফেললে একপ্রান্তে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা চালান স্যাম কারেন।

শার্দুল ঠাকুরের সাথে ২৮ রানের পার্টনারশিপ গড়ার পর শেষ জুটিতে ইমরান তাহিরকে সাথে নিয়ে যোগ করেন ৩৬ বলে ৪৩ রান।

এটি আইপিএল ইতিহাসে নবম উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি।

দলকে শত রানের মধ্যে অলআউট হওয়ার লজ্জা থেকে বাঁচিয়ে বোল্টের করা শেষ ওভারের শেষ বলে বোল্ড হন তিনি।

এর আগে তিনটি বাউন্ডারি হাকিয়ে তুলে নেন আইপিএলের দ্বিতীয় ফিফটি। ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারানো দলকে বলার মত (১১৪ রানের) একটা সংগ্রহ এনে দেন।

মুম্বাইয়ের পক্ষে ১৮ রান দিয়ে ৪টি উইকেট শিকার করেন ট্রেন্ট বোল্ট। এটি তার আইপিএল ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং ফিগার।

এর আগে ২০১৫ সালে মোহালিতে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে নেওয়া ১৯ রানে ৩ উইকেট ছিলো তার আইপিএল সেরা বোলিং।

এছাড়া জাসপ্রীত বুমরাহ ও রাহুল চাহার ২টি এবং কুল্টার নাইল নেন ১টি করে উইকেট।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে চেন্নাইয়ের বোলারদের হতাশা উপহার দেন দুই ওপেনার কুইন্টন ডি কক ও ইশান কিষাণ।

তাদের ব্যাটিং দেখে বুঝার উপায়ই ছিলোনা কিছুক্ষণ আগে প্রথম ইনিংসে এই পিচেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছিল চেন্নাই!

উইকেটের চারপাশে স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছুটিয়ে বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন দুজনই। ব্যাক্তিগত ফিফটি তুলে নেন ইষান কিষাণ।

৭৪ বলে অনবদ্য ১১৬ রানের উদ্বোধনী জুটিতে ৪৬ বল হাতে রেখেই দলকে ১০ উইকেটের জয় এনে দেন তারা।

আইপিএলে প্রথমবারের মতো ১০ উইকেটে হারলো ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস।

৩৭ বলে ৫ বাউন্ডারি ও ৬ ছক্কায় ৬৮* রানে অপরাজিত থাকেন ইশান কিষাণ। সমান বল খেলে ৪৬* রানে অপরাজিত থাকেন কুইন্টন ডি কক।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

চেন্নাই সুপার কিংসঃ ১১৪/৯ (২০ ওভার) ধোনি ১৬, কারেন ৫২, তাহির ১৩*

বোল্ট ১৮/৪, রাহুল ২২/২, বুমরাহ ২৫/২, নাইল ২৫/১

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সঃ ১১৬/০ (১২.২ ওভার) ডি কক ৪৬*, কিষাণ ৬৮*

ফলাফলঃ মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ১০ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচঃ ট্রেন্ট বোল্ট (মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স)।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক