Connect with us

এডিটরিয়াল

ঢাকাকে হারিয়ে রাজশাহী রয়্যালসের রাজকীয় জয়

লিটন এবং জাজাইয়ের দারুণ ব্যাটিংয়ে ১০ বল বাকি থাকতেই ঢাকা প্লাটুনের বিপক্ষে ৯ উইকেটের বড় জয় পেয়েছে রাজশাহী।

প্রকাশিত

তারিখ

আজ ক্যারিয়ারের ১০০ তম শূন্য রানে আউট হবার বিরল রেকর্ড গড়লেন আফ্রিদি। ছবিঃ ডেইলি স্টার

রাজশাহী রয়্যালসের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৩৫ রান। উইকেট ছিল স্লো, সাথে ঢাকা প্লাটুনের বোলিং আক্রমণে আছেন মাশরাফি, ওয়াহাব রিয়াজ, থিসারা পেরেরার মত বোলার।

তাই এ স্বল্প পুঁজিতেও ভরসা করা যাচ্ছিল। লিটন দাস এবং হজরতউল্লাহ জাজাই ভরসা করতে দিলেন কোথায়!

দুজনের দারুণ ব্যাটিংয়ে ১০ বল বাকি থাকতেই ৯ উইকেটের বড় জয় পেয়েছে তারা। বঙ্গবন্ধু বিপিএলে শুভ সূচনা রাজশাহী রয়্যালসের।

এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ঢাকা প্লাটুন ৯ উইকেটে ১৩৪ রান তোলে। সেটাও সম্ভব হত না শেষ দিকে মাশরাফি এবং ওয়াহাব রিয়াজ ঝড় না তুললে।

এ দুজনের ব্যাটেই টেনেটুনে ১৩৫ রানের লক্ষ্য দাঁড় করায় ঢাকা। এ বিপিএলের ম্যাচ দিয়েই বহুদিন পর ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলতে নামলেন মাশরাফি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও নামেননি আজ বহুদিন। নেমেই বোঝালেন বোলিংয়ের পাশাপাশি ব্যাটিং স্বত্তাটিও হারিয়ে যায়নি তার।

২ ছয়ে ১০ বলের ছোট্ট ক্যামিওতে মাশরাফি তুলেছেন ১৮ রান। ওয়াহাব রিয়াজ ২ চার, ১ ছয়ে করেছেন ১২ বলে ১৯।

অথচ ব্যাটিংয়ে নামগুলো দেখুন। তামিম ইকবাল, এনামুল হক, শহীদ আফ্রিদি, থিসারা পেরেরা, লরি ইভান্স— অন্তত কাগজে-কলমে যে কোন বোলিংকে টেক্কা দেয়ার সামর্থ্য রাখে।

তামিম ইকবাল শুরুতেই আবু জায়েদের বলে মাত্র ৫ রান করে ফিরেছেন। এনামুল হক টিকে থাকলেও অপর পাশে শুধু আসা-যাওয়ার মিছিল দেখেছেন।

তিনিও যখন ৩৮ রান করে ফিরলেন, তখন দলের রান ৬ উইকেটে ৮০। এরপরেই মাশরাফি এবং ওয়াহাবে ভর করে ঢাকার ১০০ পেরুনো।

দারুণ বল করেছেন আবু জায়েদ। শেষ ওভারে মাশরাফির তান্ডবের শিকার না হলে বোলিং পরিসংখ্যান আরো ভদ্রস্থ থাকতো।

জবাবে প্রথম থেকেই বেশ সাবলীলভাবে ব্যাটিং শুরু করেন রাজশাহীর দুই ওপেনার লিটন দাস ও হযরতউল্লাহ জাজাই।

সুযোগই দিচ্ছিলেন না ঢাকার বোলারদের। পাওয়ার প্লের দারুণ ব্যবহার করেন দুজন।

৯ম ওভারে স্পিনার মেহেদী হাসান যখন আরিফুল হকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে লিটন দাসকে আউট করেন ততক্ষণে দলের রান ৬২।

দলের হয়ে ২৭ বলে ৩৯ রান করেন লিটন। পুরো মাঠ জুড়ে দৃষ্টিনন্দন সব শট খেলে চারটি চারের পাশাপাশি দুটি ছয়ও মারেন তিনি।

লিটন আউট হয়ে যাওয়ার পরও কোন অসুবিধে হয়নি রাজশাহীর। জাজাই এবং পাকিস্তানের অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক মিলে বাকি কাজটুকু শেষ করেন।

৪৭ বলে ৫৬ রানের এক ইনিংস খেলেছেন জাজাই। ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ৩টি ছক্কার মার।

এদিকে শোয়েব মালিক ৩ চার ও ১ ছক্কার সাহায্যে ৩৬ বল থেকে করেছেন ৩৬ রান।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক