Connect with us

অস্ট্রেলিয়া

ক্যারি-ম্যাক্সওয়েলে সিরিজ জিতলো অজিরা

প্রকাশিত

তারিখ

ষষ্ঠ উইকেটে ২১২ রানের রেকর্ড জুটি গড়েন ক্যারি-ম্যাক্সওয়েল। ছবিঃ দ্য ডেইলি সান

ইংল্যান্ড বনাম অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে ৩ উইকেটের নাটকীয় জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। এর ফলে স্বাগতিকদের হারিয়ে ২-১ এ সিরিজ জিতে নিলো অ্যারন ফিঞ্চের দল।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র‍্যাফোর্ডে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের শুরুর দুই বলেই মিচেল স্টার্কের গতির কাছে পরাস্ত হয়ে সাজঘরে ফেরেন জেসন রয় ও জো রুট।

শুরুর ধাক্কা সামলে অধিনায়ক এউইন মরগান ও জনি বেয়ারস্টো মিলে গড়েন ৬৭ রানের পার্টনারশিপ

মরগানের বিদায়ের পর ক্রিজে আসা জস বাটলারও বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি।

তবে দলীয় ৯৬ রানেই ৪ উইকেট হারানো ইংল্যান্ডকে বড় সংগ্রহ এনে দেন জনি বেয়ারস্টো, স্যাম বিলিংস ও ক্রিস ওকস।

পঞ্চম উইকেটে ১১৭ বলে ১১৪ রানের পার্টনারশিপ গড়েন বেয়ারস্টো-বিলিংস।

ক্যারিয়ারের দশম ওয়ানডে সেঞ্চুরি ও দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ১১২ রানের ইনিংস খেলেন ওপেনার জনি বেয়ারস্টো।

এছাড়া স্যাম বিলিংসের ৫৮ বলে ৫৭ ও ক্রিস ওকসের ঝড়ো ৩৯ বলে অপরাজিত ৫৩ রানের সুবাধে ৫০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ৩০২ রান জমা করে স্বাগতিকরা।

অজিদের পক্ষে ৩টি করে উইকেট নেন অ্যাডাম জাম্পা ও মিচেল স্টার্ক। এছাড়া প্যাট কামিন্স নেন ১টি উইকেট।

প্রথম কোনো অজি বোলার হিসেবে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ১০ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েন জাম্পা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ক্রিস ওকস ও জো রুটের বোলিং তোপে পড়ে ১৬.৫ ওভারে দলীয় ৭৩ রানেই ৫ উইকেট হারায় সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।

কিন্তু বাকি অসাধ্য সাধনে মঞ্চ মাতানো পারফরম্যান্সে সকল আলো নিজেদের দিকে কেড়ে নেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান অ্যালেক্স ক্যারি।

দুজনের জোড়া সেঞ্চুরিতে ষষ্ঠ উইকেটে ১৯৫ বলে গড়েন ২১২ রানের জুটি!

এটি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ষষ্ঠ উইকেটে রেকর্ড রানের পার্টনারশিপ। এছাড়া রান তাড়ায়ও ৬ষ্ঠ উইকেটে সর্বোচ্চ রানের পার্টনারশিপ এটি।

৯০ বলে ৪ বাউন্ডারি ও ৭ ছক্কায় ১০৮ রান করে আদিল রশিদের বলে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন প্রায় ৫ বছর পর ওয়ানডে সেঞ্চুরির দেখা পাওয়া গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

তার বিদায়ের ৮ বল পর প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরির স্বাদ পাওয়া অ্যালেক্স ক্যারিও ১১৪ বলে ১০৬ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন।

শেষ ৬ বলে তিন উইকেট হাতে রেখে জয়ের জন্য ১০ রানের প্রয়োজন ছিলো অস্ট্রেলিয়ার। উইকেটে ছিলেন মিচেল স্টার্ক ও প্যাট কামিন্স।

আদিল রশিদের হাতে বল তুলে দেন ইংলিশ অধিনায়ক এউইন মরগান।

 

প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকান মিচেল স্টার্ক। পরের দুই বলে দুই সিঙ্গেলসে আসে দুই রান।

চতুর্থ বলে স্টার্কের বাউন্ডারিতে শেষের হাসি হাসে অস্ট্রেলিয়া। ২ বল ও ৩ উইকেট হাতে রেখেই জয় তুলে নেয় তারা।

এর ফলে ইংল্যান্ডের মাটিতে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ২-১ এ সিরিজ জিতে নেয় অজিরা।

ইংল্যান্ডের পক্ষে ২টি করে উইকেট নেন ক্রিস ওকস ও জো রুট। জফরা আর্চার ও আদিল রশিদ নেন ১টি করে উইকেট।

ইংল্যান্ড ইনিংসঃ ৩০২/৭ (৫০ ওভার), বেয়ারস্টো ১১২, মরগান ২৩, বিলিংস ৫৭, ওকস ৫৩*, কারেন ১৯, আদিল ১১*

জাম্পা ৫১/৩, স্টার্ক ৭৪/৩, কামিন্স ৫৩/১

অস্ট্রেলিয়া ইনিংসঃ ৩০৫/৭ (৪৯.৪ ওভার), ওয়ার্নার ২৪, লাবুশেইন ২০, ক্যারি ১০৬, ম্যাক্সওয়েল ১০৮, কামিন্স ৪*, স্টার্ক ১১*

ওকস ৪৬/২, রুট ৪৬/২, আর্চার ৬০/১, আদিল ৬৮/১

ফলাফলঃ অস্ট্রেলিয়া ৩ উইকেটে জয়ী, ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ ও সিরিজঃ গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (অস্ট্রেলিয়া)।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক