Connect with us

আন্তর্জাতিক

আক্ষেপের নাম সোহাগ গাজী!

প্রকাশিত

তারিখ

একই টেস্টে সেঞ্চুরি ও হ্যাট্রিকের একমাত্র রেকর্ডটি সোহাগ গাজীর । ছবিঃ বিসিবি

এলেন, দেখলেন, জয় করলেন। হ্যাঁ, বাংলাদেশের ক্রিকেটে এভাবেই আবির্ভাব হয়েছিল সোহাগ গাজীর। অভিষেকের পর থেকে আলো ছড়িয়েছেন ক্রিকেটাঙ্গনে। টেস্ট ইতিহাসে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে গড়েছেন একই টেস্টে সেঞ্চুরি ও হ্যাট্রিকের রেকর্ড! যা আজ অবধি অক্ষুণ্ণ আছে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২৯ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ওয়ানডে অভিষেকেও উজ্জ্বল ছিলেন এই অফ স্পিনার। পেয়েছিলেন ম্যাচ সেরার পুরষ্কারটাও।

দেশের ক্রিকেটে তখন বাঁহাতি স্পিনারের ছড়াছড়ি। একজন বিশেষজ্ঞ অফ-স্পিনারের প্রয়োজনটা তাই বুঝতে পেরেছিলো বিসিবি।

নাঈমুর রহমান দুর্জয়ের পর স্বীকৃত কোনো অফ-স্পিনার হিসেবে দলে সুযোগ পেয়ে দারুণ করছিলেন বরিশালের এই ক্রিকেটার।

একাদশে অফ-স্পিনারের ভূমিকায় খেললেও ব্যাট হাতেও কম যেতেননা গাজী। সুযোগ পেলে মাঝেমধ্যে দলের প্রয়োজনে ব্যাট হাতেও হাল ধরতেন।

কিন্তু হঠাৎই পায়ের তলার শক্ত মাটি হেলে পড়ে তার। অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের জন্য নিষিদ্ধ হোন ক্রিকেটে। দুইবার অ্যাকশন শুধরে ফেরার পরও আর আলো ছড়াতে পারেননি সেভাবে।

বলতে গেলে তেমন সুযোগও পাননি। বোলিং অ্যাকশন পাল্টানো নিয়ে জাতীয় দলের তৎকালীন সহকারী কোচ রুয়ান কালপাগের সাথে সৃষ্টি হয়েছিলো ভুল বোঝাবুঝিরও। এমনকি প্রশ্ন উঠেছিল তার ফিটনেস নিয়ে, ফিজিওর কথা না শোনা নিয়ে।

তিন ফরম্যাটেই নিজের অবস্থান বেশ পোক্ত করা এই ক্রিকেটার আস্তে আস্তে তাই বেশ আড়ালেই চলে যান।

এ ব্যপারে নিজের উপলব্ধি জানাতে গিয়ে কয়েক বছর আগে প্রথম আলোকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন,‘জাতীয় দল থেকে হঠাৎ বাদ পড়া, ২০১৫ বিশ্বকাপে খেলার স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়া, বোলিং অ্যাকশন শুধরে আবার ফেরা, একেবারে এলোমেলো হয়ে গিয়েছিলাম! সেভাবে আর ফিরে আসতে পারিনি। একটা টি-টোয়েন্টি খেলার সুযোগ পেয়েছিলাম মাঝে। কিন্তু নিজেকে প্রমাণের জন্য সেটা যথেষ্ট ছিল না। পরে প্রশ্ন ওঠে আমার ফিটনেস নিয়ে।’

বাংলাদেশের হয়ে ১০ টেস্ট, ২০ ওয়ানডে এবং ১০ টি আন্তর্জাতিক টি-২০ খেলা এই ক্রিকেটার উইকেট নিয়েছেন যথাক্রমে ৩৮, ২২ এবং ৪ টি।

বেশ সম্ভাবনাময় ক্যারিয়ারটা থমকে গিয়ে হাহাকার ঝরছে সর্বত্র। কিন্তু আর কতজন সোহাগ গাজীকে হারিয়ে আক্ষেপে পুড়তে হবে?

মিরাজ-নাইমদের মতো প্রতিভাবান তরুণ তুর্কীদের সাথে লড়াই করে ২৯ বছরের সোহাগ গাজীর ফেরাটা বেশ কঠিন। তবে ক্রিকেটে অসম্ভব বলে কিছু নেই।

অসাধারণ কিছু করে দেখাতে পারলে হয়তোবা আবার সুযোগ মিলতে পারে জাতীয় দলের হয়ে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার।

সেটা সময়ই বলে দেবে। কিন্তু ‘এইচপি’ কিংবা ‘এ’ দলের মতো ফেরার মঞ্চটাতে অন্তত পারফর্ম করার সুযোগ পাওয়াটা তার প্রাপ্য!

আজ জীবনের ২৯ বছর পূর্ণ করলেন বরিশালে জন্মগ্রহণ করা প্রতিভাবান এই ক্রিকেটার। শুভ জন্মদিন সোহাগ গাজী।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক