Connect with us

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (সিপিএল)

২য় ম্যাচে বারবাডোসের জয়

প্রকাশিত

তারিখ

নিজেদের ১ম ম্যাচে ৬ উইকেটের জয় তুলে নিয়েছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন বারবাডোস ট্রাইডেন্টস। ছবিঃ ক্রিকইনফো

ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লীগ সিপিএলের এবারের আসরের ২য় ম্যাচে জয় পেয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বারবাডোস ট্রাইডেন্টস। সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টসকে ৬ উইকেটে হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছে জেসন হোল্ডারের দল।

ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে সোহেল তানভির ও শেলডন কটরেলের বোলিং তোপে পড়ে দুমড়েমুচড়ে পড়ে বারবাডোসের টপ অর্ডার। মাত্র ৮ রানেই হারিয়ে বসে ৩ উইকেট!

তবে চতুর্থ উইকেটে কাইল মায়ার্স ও অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের ২৯ বলে ৬১ রানের পার্টনারশিপে শুরুর ধাক্কা সামলে স্কোরবোর্ডে ৩ উইকেটে ৬৯ রান সংগ্রহ করে বারবাডোস।

কিন্তু দলীয় ৬৯ রানে আবারো ব্যাটিং ধ্বসের শিকার হয়ে মাত্র ১০ রানের মধ্যে আরো ৩ উইকেট হারায় তারা।

৭৯ রানেই ৬ উইকেট হারানো ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা শেষ দিকে মিচেল স্যান্টনারের ১৮ বলে ২০ ও রশিদ খানের ২০ বলে ২৬ রানের সুবাদে ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান সংগ্রহ করে।

দলের পক্ষে ২২ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কায় সর্বোচ্চ ৩৮ রান করেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার।

রায়াদ এমরিট, সোহেল তানভির ও শেলডন কটরেল ২টি করে উইকেট লাভ করেন।

১৫৪ রানের সহজ টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ধীরস্থিরে ব্যাট চালান দুই ওপেনার এভিন লুইস ও ক্রিস লীন। দুজনে মিলে ওপেনিং পার্টনারশিপে ৩০ রান তুললেও বল খেলেন ২৮ টি!

এরপর দলীয় ৩০ রানে ক্রিস লীন ও ৩৯ রানে এভিন লুইসের উইকেট হারায় সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস।

তবে তৃতীয় উইকেটে জশুয়া ডি সিলভা ও বেন ডাঙ্ক মিলে ৩০ বলে ৫০ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তুলেন।

এরপর ২১ বলে ৩৪ রান করে বেন ডাঙ্ক আউট হয়ে গেলে দিনেশ রামদিনের সঙ্গে ৩০ বলে ৩৫ রানের পার্টনারশিপ গড়েন সিলভা।

তবে শেষ পর্যন্ত সিলভা অপরাজিত থাকলেও তার খেলা ৪১ বলে ৪১ রানের ধীরস্থির ইনিংস দলের জয় নিশ্চিত করতে পারেনি।

শেষদিকে সোহেল তানভির ১০ বলে ১৬ রানের ইনিংস খেললেও হাতে ৫ উইকেট থাকা সত্ত্বেও জয় থেকে মাত্র ৭ রান দূরে থাকতেই শেষ হয়ে যায় সেন্ট কিটসের নির্ধারিত ওভার।

৬ উইকেটের জয় পায় বারবাডোস ট্রাইডেন্টস।

ব্যাট হাতে ১৮ বলে ২০ রান ও বল হাতে ৪ ওভারে ১৮ রান খরচে ২ উইকেট পাওয়া মিচেল স্যান্টনার ম্যাচসেরার পুরষ্কার জেতেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বারবাডোস ট্রাইডেন্টস ১৫৩/৯ (২০ ওভার) মায়ার্স ৩৭, হোল্ডার ৩৮, স্যান্টনার ২০, রশিদ ২৬*, ওয়ালশ ৪*

এমরিট ১৬/২, কটরেল ১৬/২, তানভির ২৫/২

সেন্ট কিটস অ্যান্ড নেভিস প্যাট্রিয়টস ১৪৭/৫ (২০ ওভার) লুইস ১২, লীন ১৯, জশুয়া ৪১*, ডাঙ্ক ৩৪, তানভির ১৬*

স্যান্টনার ১৮/২, রশিদ ২৭/২

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক