Connect with us

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল)

হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের শুভ সূচনা

প্রকাশিত

তারিখ

স্মিথ স্যামসনের ১২১ রানের দুর্দান্ত জুটি। ছবিঃ রাজস্থান রয়্যালস

স্মিথ-স্যামসনের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ছক্কা বৃষ্টির হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসকে ১৬ রানে হারিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। ৩২ বলে ৭৪ রানের ইনিংস খেলেন সাঞ্জু স্যামসন।

শারজায় টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১১ রানেই জয়সালের উইকেট হারায় রাজস্থান।

তবে এরপরের গল্পটা শুধুই স্মিথ ও স্যামসনময়। দুজনই ব্যাক্তিগত ফিফটির দেখা পেয়েছেন। পাশাপাশি ৩য় উইকেটে গড়েছেন ৫৭ বলে ১২১ রানের জুটি।

দুবাইয়ে অনুষ্ঠেয় ২০১৪ সালের আইপিএলে ডেভিড মিলারের ১৯ বলে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন সাঞ্জু স্যামসন।

দলীয় ১৩২ রানে লুঙ্গি এনগিডির বলে দীপক চাহারকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন স্যামসন। আউট হবার আগে ৩২ বলে ১ বাউন্ডারি আর ৯ ছক্কায় ৭৪ রান করেন তিনি।

তার বিদায়ের পর স্মিথ ছাড়া আর কোনো ব্যাটসম্যানই বলার মতো রান করতে পারেননি। সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হবার আগে সমান ৪ বাউন্ডারি ও ছক্কায় ৪৭ বলে ৬৯ রানের ইনিংস খেলেন স্টিভ স্মিথ।

শেষদিকে জফরা আর্চারের ৮ বলে ৪ ছক্কায় ২৭ রানের ছোট্ট ঝড়ে ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ২১৬ রান সংগ্রহ করে রাজস্থান রয়্যালস।

চেন্নাইয়ের পক্ষে স্যাম কারেন ৩টি, চাহার, এনগিডি ও চাওলা নেন ১টি করে উইকেট।

২১৭ রানের বিশাল টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দারুণ সূচনা পায় চেন্নাই সুপার কিংস। দুই ওপেনার মুরালি বিজয় ও শেন ওয়াটসন মিলে ৬.৪ ওভারে ৫৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন।

এরপর রাহুল তিওয়াতিয়ার বোলিং তোপে পড়ে ৭৭ রানের মধ্যেই ৪ উইকেট হারিয়ে বসে চেন্নাই। যার তিনটি উইকেটই তিওয়াতিয়ার।

একপাশে তবু ঝড় তোলেন ফাফ ডু প্লেসিস। কেদার যাদবের সাথে ৩৭ রানের পার্টনারশিপের পর অধিনায়ক এমএস ধোনির সাথে গড়েন ৩১ বলে ৬৫ রানের ঝড়ো পার্টনারশিপ।

১৮.৫ ওভারে ৩৭ বলে ১ বাউন্ডারি ও ৭ ছক্কায় ৭২ রানের ইনিংস খেলে আর্চারের বলে আউট হোন ফাফ ডু প্লেসিস।

শেষ ওভারে ৩৮ রানের অসম্ভব সমীকরণে ব্যাট চালিয়ে টম কারেনকে ধোনির টানা ৩ ছক্কায় হারের ব্যবধান কমেছে কেবল। ২০০ রানেই থেমে যায় চেন্নাইয়ের ইনিংস।

১৭ বলে ২৯ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন এমএস ধোনি।

১৬ রানে ম্যাচ জেতে রাজস্থান রয়্যালস। ২০১০ সালের পর এই প্রথম আগে ব্যাট করে চেন্নাইকে হারালো রাজস্থান।

রাজস্থানের পক্ষে তেওয়াতিয়া ৩ টি, শ্রেয়াস গুপাল, জফরা আর্চার ও টম কারেন নেন ১টি করে উইকেট।

আইপিএল ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী ৩৩টি ছক্কার রেকর্ডে চেন্নাই-ব্যাঙ্গালোরের সাথে ভাগ বসিয়েছে এই ম্যাচটিও।

ফলাফলঃ রাজস্থান রয়্যালস ১৬ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচঃ সাঞ্জু স্যামসন (রাজস্থান রয়্যালস)।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক