Connect with us

ক্রিকেট

সুপার ওভারে জিতে ফাইনালে করাচি কিংস

প্রকাশিত

তারিখ

পুরো ইনিংসজুড়েই এমন সব অসাধারণ শটে মুগ্ধ করেছেন বাবর আজম। ছবিঃ ক্রিকইনফো

দীর্ঘ বিরতির পর পাকিস্তান সুপার লীগের অসম্পূর্ণ আসরের খেলায় মাঠে নেমেই চমক দেখালো করাচি কিংস। মুলতান সুলতান্সকে সুপার ওভারে হারিয়ে ফাইনালে বাবর আজমের দল।

টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ১৬.৩ ওভারে ১০১ রান তুলতেই ৬ উইকেট হারিয়ে বসে মুলতান সুলতান্স।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪০ রানের ইনিংস আসে রবি বোপারার ব্যাট থেকে।

শেষদিকে সোহেল তানভিরের ১৩ বলে ২৫ রানের সুবাদে ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ১৪১ রান সংগ্রহ করে মুলতান সুলতান্স।

করাচির পক্ষে ওয়াকার মাসুদ ও আরশাদ ইকবাল নেন দুটি করে উইকেট। এছাড়া ১টি উইকেট নেন ইমাদ ওয়াসিম।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাবর আজমের দারুণ ব্যাটিংয়ে জয়ের দিকে এগোতে থাকে করাচি কিংস।

পাকিস্তান অধিনায়কের ধারাবাহিক পারফর্ম্যান্স আরো একবার মুগ্ধ করেছে সবাইকে।

৫৩ বলে ৬৫ রানের ইনিংস খেলে আউট হন তিনি।

শেষ দুই ওভারে জেতার জন্য ১৯ রানের দরকার হলে সোহেল তানভির এক উইকেট দিয়ে ১৯তম ওভারে ১২ রান দেন।

তাতে জয়ের সমীকরণটা বেশ হাতের নাগালেই চলে আসে করাচির।

কিন্তু শেষ ওভারে ৭ রান ডিফেন্ড করতে গিয়ে দারুণ বোলিং করেন মোহাম্মদ ইলিয়াস। প্রথম ৫ বলে মাত্র ২ রান দিয়ে ১ উইকেট তুলে নেন তিনি।

জেতার জন্য শেষ বলে ৫ রানের দরকার হলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে স্কোর লেভেল করেন ইমাদ ওয়াসিম। ফলে ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে।

সুপার ওভারে সোহেল তানভিরের বিশ্বস্ত হাতে বল তুলে দেন মুলতানের অধিনায়ক শান মাসূদ।

কিন্তু সেই ওভারে ১৩ রান দেন এই বাহাতি রহস্য বোলার।

জবাবে ১৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে মোহাম্মদ আমিরের করা ওভারে ৮ রানের বেশি তুললে পারেনি মুলতান সুলতান্স।

এ জয় দিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করলো করাচি কিংস।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

মুলতান সুলতান্সঃ ১৪১/৭ (২০ ওভার) জুলফিকার ২১, বোপারা ৪০, তানভীর ২৫*

আরশাদ ২১/২, ওয়াকাস ২৬/২, ইমাদ ১১/১

করাচি কিংসঃ ১৪১/৮ (২০ ওভার) বাবর ৬৫, হেলস ২২, ইমাদ ২৭*

তানভীর ২৫/৩, তাহির ২২/১, ইলিয়াস ২৯/১, আফ্রিদি ৩০/১

ফলাফলঃ করাচি কিংস সুপার ওভারে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচঃ বাবর আজম (করাচি কিংস)

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক