Connect with us

অস্ট্রেলিয়া

শেষ অ্যাশেজ টেস্টে দুই দলেই আসছে পরিবর্তন

২০০১ সালের পর ইংল্যান্ড প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হোম সিরিজে পরাজয় এড়াতে চাইবে।

প্রকাশিত

তারিখ

শেষ অ্যাশেজ টেস্টে দুই দলেই আসছে পরিবর্তন

চলছে অ্যাশেজ উত্তাপ।চমকে ঠাসা এ অ্যাশেজ সিরিজে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের মধ্যকার হাড্ডাহাডি লড়াইয়ে যদিও এগিয়ে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।

সিরিজের হার এড়াতে শেষ টেস্ট জিততেই হবে ইংল্যান্ডকে। প্রথম ও চতুর্থ টেস্ট জিতে অস্ট্রেলিয়া। দ্বিতীয় টেস্টটি হয় ফলাফল শূন্য ড্র। তৃতীয় টেস্টে নাটকীয়ভাবে জয়ী হওয়া ইংল্যান্ডকে জয় ছাড়া সিরিজ জেতার কোনো সুযোগই নেই।চার ম্যাচ শেষে ২-১ ব্যবধানে অ্যাশেজে প্রতিনিধিত্ব করছে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।

বৃহস্পতিবার ওভালে শুরু হওয়া পঞ্চম ও শেষ অ্যাশেজ টেস্টের জন্যে আয়োজনের সমারোহ দুইদলেই। আসছে পরিবর্তন খেলোয়াড়ে। অ্যাশেজ জয়ের জন্য প্রস্তত দুই দলই জয়ের লক্ষ্যে ঢেলে সাজাচ্ছেন দলকে।

আর তারই পরিপ্রেক্ষিতে ইংলিশ ব্যাটসম্যান জেসন রয়কে বাদ দিয়ে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) কর্তৃক দল ঘোষনা সেই প্রস্তুতিরই অংশ বিশেষ।

রবিবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে চতুর্থ টেস্টে হেরে যাওয়া ইংল্যান্ড দলে দুটি পরিবর্তনের মধ্যে বোলার ক্রেইগ ওভারটনও অন্যতম।

তাদের পরিবর্তে দলে যোগ দিবেন অলরাউন্ডার স্যাম ক্যারন এবং ক্রিস ওকস। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে কাঁধে আঘাত পাওয়ার পর শুধুমাত্র ব্যাটসম্যান হিসাবে হয়তো দেখার সুযোগ মিলবে সিরিজ জুড়ে দারুন ছন্দে থাকা বেন স্টোকসকে।

অ্যাশেজ নেতৃত্ব দেয়া অস্ট্রেলিয়া দলটিতে এসেছে মাত্র একটি পরিবর্তন। ট্র্যাভিস হেডের পরিবর্তে অলরাউন্ডার মিচ মার্শকে নিয়ে দল ঘোষনা করেছে দলটি।

অজি ব্যাটসম্যান স্টিভ স্মিথ হতে পারে ইংল্যান্ডের অ্যাশেজ জয়ের পথে বড় বাঁধা। শেষ ম্যাচে অপ্রতিরোধ্য এই স্মিথের কাছেই হেরে যাওয়া ইংল্যান্ড তাকে প্রতিহত করতে পূর্ণ প্রস্তুতি গ্রহন করবে এমনটা অনুমেয়।ইতোমধ্যে সিরিজে মোট ৫ ইনিংসে অংশ নিয়ে ৬৭১ রান সংগ্রহ করেছেন স্মিথ।

আরেকটি বড় প্রতিরোধ আসতে পারে পেস আক্রমনে। বিশ্বের এক নম্বর র‌্যাংকধারী পেসার প্যাট কামিনস ও জস হ্যাজেলউডের ৪২টি উইকেট সেটিই প্রমান করে।

উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসাবে পুরো সিরিজ জুড়ে রয়ের দূর্বল পারফরম্যান্সই যে বাদ পড়ার কারন এবং এটাতে় অবাক হওয়ার কোনো কারনও নয় বলে উল্লেখ করেন ক্রিকেটবোদ্ধারা।

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে জেসন রয় মোট আট ইনিংস খেলে ১১০ রান করেছেন যার মধ্যে সর্বোচ্চ রান ৩১।

২০০১ সালের পর ইংল্যান্ড প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে হোম সিরিজে পরাজয় এড়াতে চাইবে। আর তার জন্যে ওভালে অ্যাশেজ জিততে মরিয়া ইংল্যান্ড।

অপরদিকে ২০০১ সালে স্টিভ ওয়াহর নেতৃত্বের পর এই প্রথম ইংল্যান্ড থেকে অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করে ফিরতে পারবে অস্ট্রেলিয়া। কারন শেষ টেস্টে ওভালে ইংল্যান্ড জিতলেও সিরিজ হবে ড্র।

উল্লেখ্য, আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে ওভালে শুরু হবে সিরিজের পঞ্চম ও শেষ টেস্ট।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক