Connect with us

ক্রিকেট

লিটন-সৌম্যের জন্য প্রয়োজনে সরকারকে চিঠি দেবে বিসিবি!

প্রকাশিত

তারিখ

সরকার বাধ্যতামূলক করলে অবশ্যই তা মানতে হবে বলে জানান বিসিবির প্রধান নির্বাহী। ছবিঃ ঢাকা ট্রিবিউন

পাঁচ দলীয় টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরুর আগে ছুটি কাটাতে বিদেশ যাওয়ার ছাড়পত্র পেয়েছেন লিটন কুমার দাস ও সৌম্য সরকার।

আর তাই বিদেশ ফেরতদের সরকারের ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন নীতির জন্য তাদের যেন বিপাকে পড়তে না হয়, এজন্য প্রয়োজনে সরকারের দ্বারস্থ হয়ে চিঠি দিবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

করোনার পর শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হওয়ায় ক্রিকেটের মধ্যেই থেকেছে টাইগাররা।

ত্রিদলীয় ওয়ানডে টুর্নামেন্ট বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ দিয়ে দীর্ঘদিনের মরচেধরা ব্যাট-বলের প্রস্তুতিটাও হয়েছে বেশ।

আর সেই টুর্নামেন্ট চলাকালীন সময়ে দুর্গাপূজার ছুটি পাননি সৌম্য সরকার ও লিটন দাস।

তবে আসর শেষ হবার পর বিসিবির কাছে ছুটির আবেদন করেছেন তারা। এতে অনাপত্তিপত্র দিয়ে ৪ নভেম্বর থেকে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত ছুটি দিয়েছে বোর্ড।

সোমবার দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে ইতোমধ্যে সস্ত্রীক দেশ ছেড়েছেন লিটন। ৫ নভেম্বর সৌম্য সরকারেরও যাওয়ার কথা।

ছুটি কাটিয়ে আসন্ন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের অনুশীলনে যোগ দিবেন দুজনই। তবে বিপত্তিটা অন্য জায়গায়।

বাংলাদেশ সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী বিদেশ ফেরত যাত্রীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। সেক্ষেত্রে ১৫ তারিখ টুর্নামেন্ট শুরু হলে খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হবে তাদের।

বিসিবির প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী জানিয়েছেন, সৌম্য-লিটনের কোয়ারেন্টাইন শিথিলের জন্য প্রয়োজনে সরকারের দ্বারস্থ হবে বোর্ড।

এবপ্রসঙ্গে দেবাশিষ বলেন সরকার যদি বাধ্যতামূলক করে (কোয়ারেন্টাইন) তবে সেটা পালন করতেই হবে।

তিনি আরো বলেন, ‘আসলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনের বিষয়টি সরকারের সিদ্ধান্ত। সেটি যদি সরকার বাধ্যতামূলক করে, তা করতেই হবে। তবে আমরা যেটা করছি, সরকারকে জরুরি ও জাতীয় প্রয়োজনে চিঠি দিচ্ছি। যেমন কোচদের কোয়ারেন্টাইন শিথিল করেছে আমাদের চিঠি পেয়ে।’

‘আমরা যা করেছি তাদের আরো একটি কোভিড-১৯ টেস্ট করিয়ে দেখেছি নেগেটিভ। তারা কাজ শুরু করেছেন। এখন সৌম্য ও লিটনকে নিয়ে আমরা চিঠি দেব, যেন শিথিল করা হয়। সরকার যদি মনে করে তারা আমাদের জাতীয় প্রয়োজন, তাহলে তারা সেইভাবে সিদ্ধান্ত নিবে।’– সাথে যোগ করেন তিনি।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক