Connect with us

ক্রিকেট

রুবেলের আগুনঝরা বোলিংয়ে মাহমুদউল্লাহ একাদশের জয়

প্রকাশিত

তারিখ

শেষদিকে রিয়াদ-সোহান জুটিতে দলের জয় নিশ্চিত করে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। ছবিঃ বিডিক্রিকটাইম

জমে উঠেছে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ। পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা মাহমুদউল্লাহ একাদশের বিপক্ষে ৪ উইকেটে হেরেছে তামিম একাদশ।

এর ফলে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে মাহমুদউল্লাহর দল।

মিরপুরে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নামে তামিম একাদশ।

ইনিংসের শুরুতেই রুবেল হোসেন ও আবু হায়দার রনির বোলিং তোপে পড়ে মাত্র ১৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে তামিম একাদশ।

যার তিনটিই নিয়েছেন রুবেল!

যদিও এরপর ইয়াসির আলী রাব্বি ও মাহিদুল ইসলাম অঙ্কনের দৃঢ়তায় শক্তভাবে ঘুরে দাঁড়ায় তামিম একাদশ। দুজনের জুটি থেকে আসে শতোর্ধ্ব রান।

এরপর দলীয় ১২৮ রানে ব্যাক্তিগত ৬২ রান করে রান আউটের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন ইয়াসির।

১৪০ রানে রুবেলের চতুর্থ শিকার হয়ে আউট হয়ে যান ১১০ বলে ৫৭ করা মাহিদুল ইসলামও।

যদিও শেষদিকে মোসাদ্দেক হোসেনের ৪০ ও সাইফুদ্দিনের ২৯ বলে ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংসে ৫০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২১ রান সংগ্রহ করে তামিম একাদশ।

মাহমুদউল্লাহ একাদশের পক্ষে রুবেল হোসেন ৪ টি উইকেট নেন। এছাড়া এবাদত হোসেন ২টি ও আবু হায়দার রনি নেন ১টি উইকেট।

জবাবে সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দলীয় ৮ রানে পরপর দুই বলে মোহাম্মদ নাইম শেখ ও লিটন দাসের উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে মাহমুদউল্লাহ একাদশ।

সেখান থেকে দলকে টেনে তুলতে সাহায্য করেন মাহমুদুল হাসান জয় ও ইমরুল কায়েস। গড়েন ৮৪ রানের জুটি।

দলীয় ৯২ রানে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ফিফটি থেকে মাত্র ১রান দূরে থাকতে আউট হন ইমরুল।

এরপর অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সাথে আরো পঞ্চাশোর্ধ রানের জুটি গড়েন জয়। ধীরগতির হলেও আউট হবার আগে খেলেন ১০১ বলে ৫৮ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস।

বাকি কাজটা প্রায় সেরে আসেন অধিনায়ক রিয়াদ। চাপের মধ্যে তুলে নেন ব্যাক্তিগত ফিফটি।

জয় থেকে মাত্র ৯ রান দূরে থাকতে ৮৭ বলে ৬৭ রানের ইনিংস খেলে আউট হন তিনি।

তবে এই লো স্কোরিং ম্যাচটা জিততেও শেষ ওভার পর্যন্ত খেলা গড়ায়।

৫ বল ও ৪ উইকেট হাতে রেখে জয় পায় মাহমুদউল্লাহ একাদশ। নুরুল হাসান সোহান ৩৭ বলে ২৬ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন।

তামিম একাদশের পক্ষে ৩টি উইকেট নেন সাইফুদ্দিন। এছাড়া খালেদ, তাইজুল ও মুস্তাফিজ নেন ১টি করে উইকেট।

এ জয়ের ফলে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ।

পরের ম্যাচে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা নাজমুল একাদশের মুখোমুখি হবে তামিম একাদশ।

এ ম্যাচে হারলেই টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়বে তামিমের দল। আর জিতলে রান রেটের হিসাবে সেমি ফাইনালের দল নির্ধারিত হবে।

১০ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেয়া রুবেল হোসেনকে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরষ্কার দেয়া হয়।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

তামিম একাদশঃ ২২১/৮ (৫০ ওভার), ইয়াসির ৬২, অঙ্কন ৫৭, মোসাদ্দেক ৪০, সাইফুদ্দিন ৩৮

রুবেল ৩৪/৪, এবাদত ৬০/২, রনি ৪০/১

মাহমুদউল্লাহ একাদশঃ ২২২/৬, মাহমুদুল ৫৮, ইমরুল ৪৯, রিয়াদ ৬৭, সোহান ২৬*

সাইফুদ্দিন ৪৯/৩, খালেদ ৩৯/১, তাইজুল ৪০/১, মুস্তাফিজ ৫৩/১

ফলাফলঃ মাহমুদউল্লাহ একাদশ ৪ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচঃ রুবেল হোসেন (মাহমুদউল্লাহ একাদশ)

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক