Connect with us

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল)

রাহুলের ক্যাচ মিসে কোহলির সর্বনাশ!

প্রকাশিত

তারিখ

৬৯ বলে ১৩২* রান করে জয়ের নায়ক লোকেশ রাহুল। ছবিঃ এনডিটিভি

আইপিএলের ৬ষ্ঠ ম্যাচে লোকেশ রাহুলের ব্যাটিং তান্ডবে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে ৯৭ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। রাহুলের করা ১৩২ রানও সব ব্যাটসম্যান মিলে করতে পারেনি বিরাট কোহলির দল।

দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নামে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

উদ্বোধনী জুটিতে মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও পাঞ্জাব অধিনায়ক লোকেশ রাহুল মিলে গড়েন ৪২ বলে ৫৭ রানের পার্টনারশিপ।

২০ বলে ২৬ রান করে আগারওয়াল আউট হয়ে গেলেও তিনে নামা নিকোলাস পুরানের সাথে ৩৮ বলে আরো ৫৭ রানের পার্টনারশিপ গড়েন রাহুল।

৩৬ বলে অধিনায়ক হিসেবে আইপিএলের প্রথম ফিফটি তুলে নেন তিনি।

দলীয় ১১৪ রানে পুরানের উইকেট হারানোর পর উইকেটে এসে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। যদিও একক কৃতিত্বে পুরো ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেন লোকেশ রাহুল।

ব্যাক্তিগত ৮৪ ও ৯০ রানে টানা দুইবার বিরাট কোহলির হাতে ক্যাচ দিয়ে জীবন পেয়ে পরে আরো বিধ্বংসী হয়ে উঠেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

ডেল স্টেইনের করা ১৯ তম ওভারের প্রথম দুই বলেই ছক্কা ও বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৬২ বলে তুলে নেন আইপিএল ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।

এরপর যেনো আরো ক্ষুরধার হয়ে ওঠে তার ব্যাট। তিন ছক্কা ও দুই বাউন্ডারিতে একই ওভারেই তুলেন মোট ২৬ রান।

এরপর শিবাম দুবের করা শেষ ওভারে তুলেন আরো ২৩ রান।

চতুর্থ উইকেটে করুন নায়ারের সাথে ২৮ বলে অনবদ্য ৭৮* রানের পার্টনারশিপ গড়েন রাহুল। যার ৬০ রানই এসেছে তার ব্যাট থেকে।

৬২ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করা রাহুল পরের ৩২ রান করতে বল খেলেন মাত্র ৭টি!

শেষ চার ওভারে ৭৪ রান তুলে ২০ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ২০৬ রান সংগ্রহ করে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

৬৯ বলে ১৪ বাউন্ডারি ও ৭ ছক্কায় ১৩২* রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন পাঞ্জাব অধিনায়ক লোকেশ রাহুল।

আইপিএল ইতিহাসে কোনো অধিনায়ক ও ইন্ডিয়ান ব্যাটসম্যানের এটিই সর্বোচ্চ স্কোর।

ব্যাঙ্গালোরের হয়ে শিবাম দুবে ২টি ও যুজবেন্দ্র চাহাল নেন ১টি উইকেট।

জবাবে ২০৭ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের শুরুতেই শেলডন কটরেলের বোলিং তোপে পড়ে হুড়মুড়িয়ে ভেঙ্গে পড়ে ব্যাঙ্গালোরের টপ অর্ডার।

২.৪ ওভারে দলীয় মাত্র ৪ রানেই আগের ম্যাচে সবার নজর কাড়া দেবদত্ত পাডিকাল, জশ ফিলিপ ও বিরাট কোহলির উইকেট হারায় আরসিবি।

এরপর চতুর্থ উইকেটে অ্যারন ফিঞ্চ ও এবি ডি ভিলিয়ার্স মিলে ৩১ বলে ৪৯ রানের পার্টনারশিপ গড়লেও ম্যাচ জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিলোনা।

একের পর এক উইকেট তুলে নিয়ে ব্যাঙ্গালোরের ব্যাটসম্যানদের ক্রিজে দাড়াতেই দেয়নি পাঞ্জাবের বোলাররা।

১৭ ওভারে মাত্র ১০৯ রানেই অল আউট হয়ে যায় বিরাট কোহলির দল।

দলের পক্ষে ২৭ বলে সর্বোচ্চ ৩০ রানের ইনিংস খেলেন ওয়াশিংটন সুন্দর। এছাড়া ডি ভিলিয়ার্স করেন ১৮ বলে ২৮ রান।

পাঞ্জাবের পক্ষে মুরুগান অশ্বিন ও রবি বিষ্ণয় ৩টি, কটরেল ২টি এবং শামি ও ম্যাক্সওয়েল নেন ১টি করে উইকেট।

৯৭ রানের বিশাল জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে প্রীতি জিনতার দল।

৬৯ বলে অপরাজিত ১৩২* রান করা পাঞ্জাব দলপতি লোকেশ রাহুলের হাতে উঠে ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবঃ ২০৫/৩ (২০ ওভার) আগারওয়াল ২৬, রাহুল ১৩২*, নায়ার ১৫*

দুবে ৩৩/২, চাহাল ২৫/১

আরসিবিঃ ১০৯/১০ (১৭ ওভার), ফিঞ্চ ২০, ভিলিয়ার্স ২৮, ওয়াশিংটন ৩০

অশ্বিন ২১/৩, বিষ্ণয় ৩২/৩, কটরেল ১৭/২, ম্যাক্সওয়েল ১০/১, শামি ১৪/১

ফলাফলঃ কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ৯৭ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচঃ লোকেশ রাহুল (কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব)।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক