Connect with us

ক্রিকেট

সততার সঙ্গে কাজ করতে চান রাজ্জাক

প্রকাশিত

তারিখ

তৃতীয় নির্বাচক হিসেবে যুক্ত হয়েছেন রাজ্জাক। ছবিঃ ক্রিকইনফো

বাশার-নান্নুর সাথে তৃতীয় নির্বাচক হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে চলা নানান জল্পনাকল্পনার শেষ হলো অবশেষে। নির্বাচক প্যানেলে যুক্ত হলেন দেশের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের একজন আব্দুর রাজ্জাক রাজ।

বেশ ক’দিন ধরেই তৃতীয় নির্বাচক হিসেবে অভিজ্ঞ শাহরিয়ার নাফীস ও আব্দুর রাজ্জাকের নাম শোনা যাচ্ছিলো।

কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ব্রাত্য থাকলেও ঘরোয়া ক্রিকেটে দু’জনই দাপটের সাথে চালিয়ে যাচ্ছিলেন খেলা।

তাই খেলা ছেড়ে নির্বাচক কমিটিতে যোগ দিতে এতোটা দৌড়ঝাপ ছিলোনা তাদের।

অবশেষে বিসিবির পক্ষ থেকে হাবিবুল বাশার সুমন ও মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর সাথে তৃতীয় নির্বাচক হিসেবে আব্দুর রাজ্জাকের নাম ঘোষণা করা হলে দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি হয়।

শুভাকাঙ্ক্ষীরা স্বাগত জানাচ্ছেন ক্লিন ইমেজের এই অনন্য উদাহরণকে। সাদরে গ্রহণ করে নিচ্ছেন কোনো বিতর্ক ছাড়াই।

ক্যারিয়ারের শেষ সময়টাতে নিজেই থেকেছেন অবহেলিত। তরুণদের সুযোগ দিতে নিজের অভিজ্ঞতার ঝুলি উজাড় করে দিয়েও জায়গা হয়নি জাতীয় দলে।

অথচ একটা সময় রাজ্জাককে ছাড়া রঙ্গিন পোশাকের বাংলাদেশ দল তো দূরের কথা, একাদশটাই ভাবা যেতোনা।

কঠিন বাস্তবতা রাজ্জাকের অজানা নয়। মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ দুটোই নিজে অনুধাবন করেছেন।

নতুন ভূমিকায় এই কঠিন কাজটিই করতে মুখিয়ে আছেন ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ২০০ উইকেট শিকার করা আব্দুর রাজ্জাক।

নতুন দায়িত্ব পেয়ে বিসিবিকে ধন্যবাদ জানিয়ে রাজ্জাক বলেন, সবসময়ই ক্রিকেটের সাথেই থাকতে চেয়েছেন তিনি।

ক্রিকেট ভিত্তিক অনলাইন পোর্টাল বিডিক্রিকটাইমকে তিনি বলেন,

 

‘এটা অনেক বড় একটা দায়িত্ব। ক্রিকেটের জন্য কিছু করার অনেক বড় প্লাটফর্ম। প্রথমত ক্রিকেট বোর্ডকে অসংখ্য ধন্যবাদ আমাকে বেছে নেওয়ার জন্য।’

‘তারপর বলব, ক্রিকেটের সাথে থাকতে পারাটাই আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। সবসময় চেয়েছি খেলা ছাড়ার পর যেন ক্রিকেটের সাথেই থাকি।’

রাজ্জাক আরো বলেন, নিজের অভিজ্ঞতা বিলিয়ে দিয়ে দেশের ক্রিকেটের স্বার্থে সততার সঙ্গে কাজ করতে চান তিনি,

‘আমার যতটুকু যা অভিজ্ঞতা হয়েছে আমি যেন তা সবার মধ্যে বিলিয়ে দিতে পারি। আমার উদ্দেশ্য একটাই থাকবে- সততার সাথে যেন কাজ করতে পারি।’

‘যারা এতদিন ধরে এই কাজ করছেন তারা সেটাই করছেন। এমনভাবে কাজ করতে চাই যাতে বাংলাদেশের ক্রিকেট, বাংলাদেশ উপকৃত হয়।’ যোগ করেন তিনি।

দল নির্বাচনের মতো কঠিন এই কাজটি করতে পাখির চোখে পরখ করতে হবে ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স।

 

রাজ্জাকও বললেন, যতবেশি সম্ভব খেলা দেখার চেষ্টা করবেন তিনি।

রাজ্জাক যোগ করেন, ‘না দেখে তো আমি বুঝতে পারব না। না দেখলে জানব না কী হচ্ছে, কী চলছে। চেষ্টা থাকবে যত বেশি সম্ভব খেলা দেখা, বর্তমান পরিস্থিতি দেখে কাজগুলো করা।’

কাজটি যদিও কঠিন, তবু খেলোয়াড়ি জীবনে অবিতর্কিত এই ক্রিকেটার নতুন ভূমিকায়ও অবিতর্কিত থাকবেন সেটাই ক্রিকেটপ্রেমীদের প্রত্যাশা। শুভকামনা আব্দুর রাজ্জাক রাজ।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক