Connect with us

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল)

রাজস্থানের রেকর্ড গড়া জয়ের নায়ক স্যামসন-তেওয়াটিয়া

প্রকাশিত

তারিখ

৭ ছক্কায় ৩১ বলে ৫৩ রান করেন রাহুল তেওয়াটিয়া। ছবিঃ এনডিটিভি

স্যামসন-তেওয়াটিয়ার ছক্কা বৃষ্টিতে হাই-স্কোরিং ম্যাচে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে ৪ উইকেটে হারিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। বৃথা গেছে মায়াঙ্ক আগারওয়ালের সেঞ্চুরি!

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে আগে ব্যাট করতে নেমে রাজস্থানের বোলারদের উপর রীতিমতো তান্ডব চালান দুই ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান লোকেশ রাহুল।

উইকেটের চারপাশে চোখ জুড়ানো সব দারুণ শটে ৯৯ বলে ১৮৩ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন এই দুই ব্যাটসম্যান ।

১৬.৩ ওভারে ১০ চার ও ৭ ছক্কায় ৫০ বলে ১০৬ রান করে আউট হোন মায়াঙ্ক আগারওয়াল। এর ১১ রান পর ৫৪ বলে ৬৯ রান করা লোকেশ রাহুলও সাজঘরে ফেরেন।

শেষদিকে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও নিকোলাস পুরানের ১২ বলে অপরাজিত ২৯ রানের পার্টনারশিপে ২০ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ২২৩ রান সংগ্রহ করে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

রাজস্থানের পক্ষে টম কারেন ও অঙ্কিত রাজপূত নেন ১টি করে উইকেট।

জবাবে তাড়া করতে নেমে ইনিংসের শুরুতেই দলীয় ১৯ রানে জস বাটলারের উইকেট হারায় রাজস্থান রয়্যালস।

তবে মঞ্চটা যে আগের ম্যাচের দুই নায়ক স্টিভ স্মিথ ও সাঞ্জু স্যামসনের জন্য আবারো সাজানো ছিলো তা কে জানতো!

মাত্র ৪০ বলে ৮১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন স্মিথ-স্যামসন। ২৭ বলে ৫০ রান করে স্মিথ আউট হলেও অন্যপ্রান্তে রীতিমতো ঝড় তোলেন স্যামসন।

রাহুল তেওয়াটিয়াকে নিয়ে গড়েন আরো ৪৩ বলে ৬১ রানের পার্টনারশিপ।

আগের ম্যাচে ৩২ বলে ৭৪ রান করা স্যামসন এই ম্যাচে মোহাম্মদ শামির বলে ক্যাচ দেওয়ার আগে করেন ৪২ বলে ৮৫ রান।

৪ বাউন্ডারি ও ৭ ছক্কায় সাজানো ছিলো তার ইনিংসটি।

এরপর মাত্র ১২ বলে ৪২ রানের পার্টনারশিপ গড়েন রাহুল তেওয়াটিয়া ও রবিন উথাপ্পা।

জয়ের জন্য শেষ ১৮ বলে ৫১ রানের দরকার ছিলো রাজস্থান রয়্যালসের।

শেলডন কটরেলের করা ১৮তম ওভারে ৫ টি ছক্কা হাঁকান তেওয়াটিয়া। তাতে ম্যাচের নাটাই অনেকটাই রাজস্থানের হাতে চলে আসে।

পরের ওভারে মোহাম্মদ শামিকে জফরা আর্চার ২টি এবং আউট হবার আগের বলে রাহুল তেওয়াটিয়া ১টি ছক্কা হাঁকালে সেই ওভারে আসে ১৯ রান।

৩১ বলে ৫৩ রান করে আউট হোন তেওয়াটিয়া।

প্রথম ৮ রান করতে ১৯ বল খেলা এই ব্যাটসম্যানের ইনিংসে ছিলোনা কোনো বাউন্ডারিই, অথচ শেষ ১২ বলে ৭ ছক্কায় করেন ৪৫ রান!

শেষ ওভারে জয়ের জন্য ২ রানের প্রয়োজন হলে তৃতীয় বলেই টম কারেনের ব্যাট থেকে আসা বাউন্ডারিতে ৪ উইকেটের জয় পায় রাজস্থান রয়্যালস।

আইপিএলে ১৩ বছর পর সর্বোচ্চ রান তাড়া করে জেতা নিজেদের রেকর্ড ভেঙ্গেছে রাজস্থান রয়্যালস। ২০০৮ সালে ডেকান হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে ২১৫ রান তাড়া করে জিতেছিলো তারা।

এদিকে ৯ বছর পর আইপিএল ইতিহাসে ইনিংসের শেষ ৫ ওভারে সর্বোচ্চ রান তুলার রেকর্ডটাও নিজেদের করে নিয়েছে রাজস্থান।

গতকাল শেষ ৫ ওভারে ৮৬ রান তুলে তারা।

পাঞ্জাবের পক্ষে শামি ৩টি এবং কটরেল, নিশাম, ও মুরুগান অশ্বিন নেন ১টি করে উইকেট।

৪২ বলে ৮৫ রান করা সাঞ্জু স্যামসন টানা ২ ম্যাচে জিতে নেন ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরষ্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবঃ ২২৩/২ (২০ ওভার), রাহুল ৬৯, আগারওয়াল ১০৬, ম্যাক্সওয়েল ১৩, পুরান ২৫

রাজপূত ৩৯/১, কারেন ৪৪/১

রাজস্থান রয়্যালসঃ ২২৬/৬ (১৯.৩ ওভার), স্মিথ ৫০, স্যামসন ৮৫, তেওয়াটিয়া ৫৩, আর্চার ১৩

শামি ৫৩/৩, অশ্বিন ১৬/১, নিশাম ৪০/১, কটরেল ৫২/১

ফলাফলঃ রাজস্থান রয়্যালস ৪ উইকেটে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচঃ সাঞ্জু স্যামসন (রাজস্থান রয়্যালস)।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক