Connect with us

ক্রিকেট

রংপুরের ১৮১ রানকে মামুলি বানিয়ে জিতল কুমিল্লা

১৮২ রানের লক্ষ্য দিয়ে বোলারদের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে ৬ উইকেটে হেরেছে রংপুর।

প্রকাশিত

তারিখ

ঝড়ো ব্যাটিংয়ে রংপুরকে বড় সংগ্রহ এনে দেন শেহজাদ। ছবিঃ ডেইলি স্টার

বিপিএল ঢাকা থেকে চট্রগ্রামে গিয়েছে। খাঁ খাঁ গ্যালারিতে দর্শক সমাগম হয়েছে। উড়তে থাকা ড্রোন হারিয়ে গিয়েছে। কিন্তু রংপুরের বোলারদের ছন্দ এখনো ফেরেনি।

তাই এখনো বিপিএলে ধুঁকছে রংপুর। আজও ১৮২ রানের লক্ষ্য দিয়ে বোলারদের ব্যর্থতায় কুমিল্লার কাছে ৬ উইকেটে হেরেছে তারা।

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮১ রান তুলেছে রংপুর রেঞ্জার্স।

আজও দলের হাল ধরেছেন দলের বিদেশিরা। মোহাম্মদ শেহজাদ, টমাস অ্যাবেল, লুই গ্রেগরি ও মোহাম্মদ নবী— এই চার বিদেশির ব্যাটে চড়েই ১৮১ রান তুলেছে রংপুর।

রংপুরের হয়ে আজ শুরু করেন মোহাম্মদ শেহজাদ এবং মোহাম্মদ নাঈম। দ্রুত গতিতে রান তোলায় অভ্যস্ত মোহাম্মদ শেহজাদ আজ পণ করে নেমেছিলেন যতক্ষন ক্রিজে থাকবেন বেরধর পেটাবেন।

শেহজাদ যখন সানজামুল ইসলামের বলে কুমিল্লার অধিনায়ক দাসুন শানাকার হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন, তখন মাত্র খেলা শেষ হয়েছে ৮.১ ওভার।

দলের রান তখন ৮৬। ২৭ বল খেলে সাতটি চার ও চারটি ছক্কার সাহায্যে ৬১ রান তোলেন শেহজাদ।

অন্য সঙ্গী নাঈম অবশ্য আজ তেমন কিছুই করতে পারেন নি। ৮ রান করে সাব্বির রহমানের থ্রোতে রান আউট হয়েছেন।

এরপর তিনটি ছোট কিন্তু কার্যকরী ইনিংসে ১৮০ পেরোয় রংপুর। ২৫ বলে দুটি চারের সাহায্যে ২৫ রান করে সৌম্যের প্রথম বলেই আউট হোন টমাস অ্যাবেল।

রংপুরের অধিনায়ক মোহাম্মদ নবী ২০ বলে তিনটি চারের সাহায্যে ২৬ রান করেন। ১২ বলে ২১ রান করে ঝড়ের ইঙ্গিত দেয়ার আগেই আল-আমিনের বলে আউট হয়ে যান গ্রেগরি।

শেষ দিকে নাদিফ চৌধুরীর ১১ বলে ১৫ ও আরাফাত সানির ১০ বলে ১৫ রানের দুটি দশ পেরোনো ইনিংসে ১৮১ রান করে রংপুর।

ব্যাট করতে নেমে রংপুরের দেওয়া ১৮২ রানের লক্ষ্যও অনায়াসে পার করে ফেলল কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স।

কুমিল্লার হয়ে ইনিংস শুরু করেন রাজাপক্ষ এবং সৌম্য। ১৫ বলে চারটি চার ও দুই ছক্কার সাহায্যে ১৫ বলে ৩২ রান করে পাওয়ার প্লের ব্যবহার করেছেন রাজাপক্ষ।

তার এমন ঝড়ো ব্যাটিংয়েই ৬ ওভারে কুমিল্লার রান ৬১। সৌম্য সে তুলনায় সত্যিকার অর্থে সৌম্য ছিলেন।

দ্বাদশ ওভারে মুকিদুল ইসলামের বলে মোহাম্মদ নবীর হাতে ক্যাচ হওয়ার আগে ৩৪ বলে ৪১ রান করেন তিনি।

অনেক দিন ধরে অফ ফর্মে থাকা সাব্বির আজকে এক রানের জন্য হাফ সেঞ্চুরি পান নি। তিনটি চার ও দুটি ছক্কায় ৪০ বলে ৪৯ রান করেন সাব্বির।

দাসুন শানাকাকে নিয়ে ২৪ বলে ৪২ রান করে ম্যাচ শেষ করে এসেছেন ইংলিশ ব্যাটসম্যান ডেভিড মালান।

তিন ম্যাচে এখনো জয়হীন রংপুর। অপরদিকে তিন ম্যাচের মধ্যে দুটিতে জিতে নিয়ে পয়েন্ট তালিকার চতুর্থ অবস্থানে আছে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক