Connect with us

আন্তর্জাতিক

বাটলারের সামনে শেষ সুযোগ!

প্রকাশিত

তারিখ

ফাইনাল না জিতলে খেলাই ছেড়ে দিতেন বাটলার!
বাটলারের জীবনের সেরা মুহুর্ত।ছবিঃ ইংল্যান্ড ক্রিকেট
জস বাটলার, ইংল্যান্ডের অন্যতম সেরা প্রতিভা। ব্যাট হাতে নেমে নামকরা বোলারদের রীতিমতো নাকানিচুবানি খাইয়েছেন কতবার।
আক্রমনাত্মক এই ব্যাটসম্যানের রঙ্গিন পোশাকের তুলনায় সাদা পোশাকের ক্রিকেট ক্যারিয়ার বেশ বিবর্ণ!
ইংল্যান্ডের হয়ে ৬৯ টি-২০ ও ১৪২ ওয়ানডে ম্যাচের সাথে খেলেছেন ৪২ টি টেস্ট ম্যাচও।
কিন্তু সর্বশেষ ১২ ইনিংসে একটি হাফ সেঞ্চুরিও নেই তার! ৪২ ম্যাচের টেস্ট ক্যারিয়ারে ৭৫ ইনিংস ব্যাট করে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন মাত্র এক বার!
আর তাতেই এই উইকেট কিপার ব্যাটসম্যানের সাদা পোশাকের ক্যারিয়ার বেশ হুমকির মুখে মনে করছেন ইংল্যান্ডের সাবেক কৃতি ক্রিকেটার ড্যারেন গফ।
সামনের দুটি টেস্টকে বাটলারের টেস্ট ক্যারিয়ার বাঁচানোর মঞ্চ বা সুযোগ হিসেবে মনে করছেন সাবেক এই পেস বোলার।
শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের বিধ্বংসী বোলিং ও জার্মেইন ব্ল্যাকউডের অসাধারণ ব্যাটিং নৈপুন্যে সাউদাম্পটনে ইংল্যান্ডের ঘরের মাঠে প্রথম টেস্ট জিতে যায় সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
সেই টেস্ট জয়ের অন্যতম নায়ক ব্ল্যাকউডকে ২০ রানে জীবন দিয়েছিলেন বাটলার।
উইকেটের পেছনে ব্ল্যাকউডের ক্যাচ ছাড়ার পর ৯৫ রান করে সেই ব্ল্যাকউডই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জয়ের বন্দরে নিয়ে পৌছান।
ব্যাট হাতেও সফল ছিলেননা এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। প্রথম ইনিংসে ৩৫ এবং দ্বিতীয় ইনিংসে করেন মাত্র ৯ রান।
ইংল্যান্ডের মত শীর্ষ দলে খেলে এমন পারফরম্যান্স ক্যারিয়ারে সবুজ বাতির সংকেত দিবেনা নিশ্চয়ই।
আর তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আসন্ন দুটি টেস্টকে ক্যারিয়ার বাঁচানোর সুযোগ হিসেবে দেখছেন গফ।
তিনি বলেন, “আমি মনে করি, ক্যারিয়ার বাঁচাতে বাটলারের সামনে দুটি টেস্ট আছে।”
তবে বাটলারের প্রতিভা নিয়ে সংশয় নেই তার, “সে দারুণ এক প্রতিভা। অনেক কিশোর তাকে অনুসরণ করে। এবং তার কাছে সব ধরনের শট আছে। কিন্তু টেস্টে এভাবে লাগাতার আউট হওয়া যায়না, যা সে করছে।”
বাটলারের ১৪২ ম্যাচের ওয়ানডে ক্যারিয়ারটা বেশ চকচকে। ২০ ফিফটি এবং ৯টি সেঞ্চুরির সাহায্যে ৪০.৮৮ এভারেজে রান করেছেন ৩৮৪৩।
সর্বোচ্চ ১৫০ রান। স্ট্রাইকরেট ১১৯.৮৩!
টি-২০ তে আরো ভয়ংকর বাটলার। ৬৯ ম্যাচের ক্যারিয়ারে ঈর্ষনীয় ১৩৯.৬৮ স্ট্রাইকরেটে রান করেছেন ১৩৩৪। ফিফটি আছে ৮ টি, ছক্কা হাঁকিয়েছেন ৫৫ টি।
৪২ টেস্টের ৭৫ ইনিংসে ব্যাট করে ৩১.৪৬ এভারেজে ১৫ টি ফিফটি এবং ১ টি সেঞ্চুরিতে ২১৭১ রান একেবারেই ফেলে দেয়ার মতো না।
কিন্তু দলটা যেহেতু ইংল্যান্ড, লাল বলের ক্রিকেটে পারফরম্যান্সটা আরো বিস্তৃত হতে হবে। সময় অন্তত তাই বলছে।
শেষ দুটি টেস্টে ইংল্যান্ডের মরিয়া হয়ে ফেরার লড়াইয়ে বাটলারও নিশ্চয়ই নিজের লড়াইটা চালিয়ে যাবেন।
আগামী ১৬ জুলাই থেকে ম্যানচেস্টারে শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট। একই ভেন্যুতে শেষ টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে ২৪ জুলাই থেকে।
তিন ম্যাচ টেস্টের প্রথমটি জিতে ১-০ তে ইতিমধ্যেই এগিয়ে আছে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।
পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক