Connect with us

ক্রিকেট

‘প্রতিবাদ করতে চাইলে কার্যকর কোন কিছুর প্রতিবাদ করুন’

প্রকাশিত

তারিখ

সাকিব আল হাসান ও তার পরিবার। ছবিঃ উম্মে আহমেদ শিশির

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাকিব আল হাসানের বড় কন্যা আলায়না হাসান অব্রির একটি ছবিতে করা কয়েকটি বাজে মন্তব্য নিয়ে তোলপাড় চলছে। প্রচার আর প্রতিবাদের এই ব্যাপারটি একদম ভালো লাগেনি সাকিব পত্নী উম্মে আহমেদ শিশিরের।

মন্তব্যকারীদের নিয়ে কিছু না বললেও বিভিন্ন পেইজের এডমিনদের কড়া সমালোচনা করতে ছাড়েননি তিনি। যারা অসংখ্য ভালো মন্তব্যের ভীড়ে চারটা মন্তব্যকে বড় ইস্যু করে ভাইরাল করেছে।

দু’দিন আগে দেয়া নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজের একটি পোস্টে শিশির লিখেন,‘কি ঘটছে তা সম্পর্কে আমি অবগত ছিলাম না কারণ এসব আমাদের বিরক্ত করেনা। পাবলিক ফিগার হিসেবে আমাদের অনেক ভক্ত, অনুসারী, শুভাকাঙ্ক্ষী ও খারাপ চাওয়া মানুষ রয়েছে। এটা একটা প্যাকেজ বলা যায়, অবশ্যই আমরা সবসময় আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকি, এটা ভালো ব্যাপার।’

‘বিশ্বজুড়ে বহু তারকাদেরই বাজে পরিণতির মুখোমুখি হতে হয়। কিন্তু অন্যান্য দেশে প্রতিবাদের জন্য হাজারটা ভালো মন্তব্যের ভীড়ে ৪-৫ টি বাজে মন্তব্য আমলে নিতে ফোন হাতে বসে থাকার সময় থাকেনা। আক্ষরিক অর্থে পুরো ব্যাপারটি ঘটেছে হাজারটা ভালো মন্তব্যের মধ্যে ৪ টি বাজে মন্তব্যের উপর ভিত্তি করে।’

‘আমি ঐ মন্তব্যকারীদের পিছনে লাগতে চাইনা কারণ এটা আমাদের খুব একটা ছুঁতে পারেনি। আমি কিছু পেইজের এডমিনদের নিয়ে বলতে চাই যারা এই ৪ টি মন্তব্যকে খন্ডানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এবং একটি সামান্য ব্যাপারকে বড় ইস্যু হিসেবে তুলে ধরেছে।’‘উচ্চ কর্তৃপক্ষ এটা নিয়ে কাজ করছে। চলেন আপনার পেইজের কিছু প্রচার করুন! কোন কিছুই আমাদের উদ্দেশ্য ও জীবনযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করবেনা। কারণ এসব সামান্য ব্যাপার কোনোভাবেই আমাদের বিচলিত করেনা। প্রতিবাদ করতে চাইলে কার্যকর কোন কিছুর প্রতিবাদ করুন। সময় নষ্ট হওয়ার মত মন্তব্যগুলো দেখতে আমার ছবিতে বসে থাকবেন না।’

উল্লেখ্যঃ পরবর্তীতে ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে রিমুভ করা হয়। এবং সাইবার অপরাধের মধ্যে পড়ায় ইতোমধ্যে বাজে মন্তব্যকারীদের আইডি শনাক্ত করে তাদের খুঁজে বের করতে চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক