Connect with us

আন্তর্জাতিক

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স এর দাপুটে জয়

প্রকাশিত

তারিখ

দাসুন সানাকার দৃষ্টিনন্দন ব্যাটিং। ছবিঃ কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স এর অধিনায়ক দাসুন সানাকার দৃষ্টিনন্দন ব্যাটিং নৈপুণ্যে বিপিএলের সপ্তম আসরের দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ১০৫ রানে বিশাল ব্যবধানে জয় কুমিল্লার।

১৩.৫ ওভারে ৬ষ্ঠ উইকেট পতনের পর অধিনায়ক দারুস শানাকার ব্যাটিং তান্ডব এলোমেলো করে দেয় পুরো খেলার হিসেব নিকেশ।

৯ ছক্কা ও ৩ চারে ৩১ বলে অপরাজিত ৭৫ রানের দূর্দান্ত ইনিংস খেলে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৭৩ রানের এক চ্যালেঞ্জিং স্কোর গড়তে সক্ষম হয় কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স।

রানের খাতা না খুলেই রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিং নেমে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের ওপেনার ইয়াসির আলীকে গোল্ডেন ডাকে বোল্ড করে প্যাভিলিয়নে ফেরান অধিনায়ক মোহাম্মদ নবী।

তবে প্রাথমিক ধাক্কা সামলিয়ে দলকে খেলায় ফেরায় মারকুটে ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার।

৪টি চার ও এক ছক্কায় ১৮ বলে ২৬ রানে মোস্তাফিজুর রহমানের শিকার হন এবার সৌম্য।

দলীয় স্কোরবোর্ড যখন ঈঙ্গিত দিচ্ছে ৬ ওভারে অর্ধশত রানের ঠিক তখন কুমিল্লার শিবিরে সনজিত সাহার আঘাত।

সনজিত সাহার অফ স্পিনে বিভ্রান্ত এলবিডব্লুর ফাঁদে পড়েন ভানুকা রাজাপাক্ষে। ৩ চারে ১৫ বলে ১৩ রানে রাজাপাক্ষেকে সাজঘরে ফেরান তিনি।

সনজিত সাহার এবার দ্বিতীয় শিকারে পরিনত হন ডেভিড মালান। ২৩ বলে ২৫ রানে মোহাম্মদ শাহজাদের তালুতে ক্যাচবন্দী হয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

সাব্বির রহমানের ব্যাট থেকে আসে ১৭ বলে ১৯।মহিদুল ইসলাম অঙ্কন ২ ও আবু হায়দার দলীয় স্কোরবোর্ডে ৬ রান যোগ করতে সক্ষম হন।

রংপুর রেঞ্জার্সের পক্ষে ২টি করে উইকেট নেন মোস্তাফিজ, সঞ্জিত সাহা ও লুইস গ্রেগরি।

কুমিল্লার দেয়া রানের জবাবে রীতিমত ধুঁকতে হয়েছে রংপুরকে। কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বোলারদের তোপের মুখে ক্রিজে শক্ত অবস্হান গড়তে ব্যর্থ সব ব্যাটসম্যানরা।

আফগান ব্যাটম্যান শেহজাদ থেকে শুরু করে ভারত সিরিজে দূর্দান্ত ব্যাট করা নাঈম বা অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবী সবাই পরাস্ত হন।

দলীয় ১৫ ও ব্যক্তিগত ১৩ রান নিয়ে মুজিবরের বলে আউট হয়ে বিদায় নেন শেহজাদ। শেহজাদের পর আসা যাওয়ার মিছিল নেমেছিলো যেনো রংপুর রেঞ্জার্সের শিবিরে।

জহিরুল ইসলাম ৫, ফজলে মাহমুদ ১, লুইস গ্রেগরি ০ ,মোহাম্মদ নবি ১১ ,সঞ্জিত সাহা ০ , মোহাম্মদ নাঈম ১৭ ও তাসকিন আহমেদের ১ রানের সুবাদে ১৪ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৬৮ রানেই ইনিংসের সমাপ্তি টানে রংপুর।

কুমিল্লার হয়ে আল-আমিন ৩ টি উইকেট
সৌম্য এবং সানজামুল ২ টি উইকেট সংগ্রহ করেন।১টি উইকেট করে নেন মুজিবর রহমান এবং আবু হায়দার রনি।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক