Connect with us

আন্তর্জাতিক

ওকস-বাটলারে ইংল্যান্ডের শ্বাসরুদ্ধকর জয়

প্রকাশিত

তারিখ

ক্রিস ওকসের অপরাজিত ৮৪* রানে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পায় ইংল্যান্ড। ছবিঃ আইসিসি

ম্যানচেস্টারে পাকিস্তান বনাম ইংল্যান্ডের মধ্যকার উত্তেজনাকর প্রথম টেস্ট জিতে নিয়েছে ইংল্যান্ড। ক্রিস ওকস ও জস বাটলারের ব্যাটে ভর করেই ৩ উইকেটের জয় পায় স্বাগতিকরা।

প্রথম ইনিংসে পাকিস্তানের ৩২৬ রানের জবাবে ২১৯ রানেই অল আউট হয়েছিলো ইংল্যান্ড। কিন্তু ১০৭ রানের লিড পেয়েও দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৬৯ রানেই গুটিয়ে যায় পাকিস্তানের ইনিংস।

আগের দিন ৮ উইকেটে ১৩৭ রান করা পাকিস্তান চতুর্থ দিনে মাত্র ২.৪ ওভার ব্যাট করতে পেরেছে। যদিও ইয়াসির শাহর ২৪ বলে ৩৩ রানের ঝড়ো ইনিংসে শেষ পর্যন্ত ১৬৯ রান তুলে তারা।

২৭৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় ইংল্যান্ড। দলীয় ২২ রানে মোহাম্মদ আব্বাসের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে আউট হোন ওপেনার রোরি বার্নস।

অবশ্য এরপর অধিনায়ক জো রুট আরেক ওপেনার ডোম সিবলীকে নিয়ে ১৫০ বলে ৬৪ রানের দায়িত্বশীল একটি জুটি গড়ে তুলেন।

যদিও দলীয় ৮৬ রানে ইয়াসির শাহর বলে আসাদ শফিককে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন ১১৪ বলে ৩৬ রান করা সিবলী।

তার উইকেটের পর হুড়মুড়িয়ে বেশকটি উইকেট পড়ে যায় ইংলিশদের। স্কোরবোর্ডে আরো ১০ রান যোগ করার পর জো রুটকে বাবর আজমের ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে ফেরান নাসিম শাহ।

আউট হবার আগে ৮৪ বলে ৪২ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

পরের ২১ রানের মধ্যে ফর্মের তুঙ্গে থাকা বেন স্টোকস ও ওলী পোপকে আউট করলে ১১৭ রানেই ৫ উইকেট হারায় ইংল্যান্ড।

টানটান উত্তেজনায় টিভি সেটের সামনে থাকা দর্শকরা জয়ের পাল্লায় পাকিস্তানকে বেশ এগিয়ে রেখেছিলেন হয়তো।

কিন্তু জস বাটলার ও ক্রিস ওকসের পার্টনারশিপে ভেস্তে যায় পাকিস্তানের স্বপ্ন!

নিজেদের ক্যারিয়ারের ১৭তম ও ৫ম ফিফটি তুলে নেন বাটলার ও ওকস। গড়ে তুলেন অপ্রতিরোধ্য ১৯৯ বলে ১৩৯ রানের পার্টনারশিপ।

আর তাতেই ফিকে হয়ে যায় পাকিস্তানের ম্যাচ জেতার আশা।

১১৭ রানে ৫ উইকেট হারানো ইংল্যান্ডের পরের উইকেট পড়ে ২৫৬ রানে! ইয়াসির শাহর বলে ব্যাক্তিগত ৭৫ রানে এলবিডব্লু হোন জস বাটলার।

বাটলারের বিদায়ের পর স্টুয়ার্ট ব্রডকে নিয়ে এগোতে থাকেন ক্রিস ওকস। জয় থেকে মাত্র ৪ রান দূরে থাকতে ইয়াসির শাহর চতুর্থ আঘাতে সাজঘরে ফেরেন ব্রড।

যদিও বাকি কাজটা সেরে আসেন জয়ের নায়ক ক্রিস ওকস। ব্যাক্তিগত ১২০ বলে ৮৪ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়েন তিনি।

১৭ ইনিংস পর ক্রিস ওকসের ব্যাট থেকে আসা ফিফটিই ইংল্যান্ডকে ৩ উইকেটের জয় এনে দেয়।

গত ১০ টি টেস্ট সিরিজের ৮ টি তেই প্রথম টেস্ট হারা ইংল্যান্ড অবশ্য এবার আর প্রথম টেস্ট হারেনি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শেষ দুটি টেস্ট জয় সহ টানা ৩ টি টেস্ট জিতে নিলো স্বাগতিকরা।

ম্যাচে ১০৩ রান ও ৪ উইকেট নিয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচ পুরষ্কার জেতেন ক্রিস ওকস।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক