Connect with us

আন্তর্জাতিক

এবছরই দুবাইয়ে আইপিএল!

প্রকাশিত

তারিখ

দুবাইতে আইপিএল হওয়ার জোর প্রস্তুতি। ছবিঃ সংগৃহীত

দুবাইতেই হচ্ছে এবছরের আইপিএল আসর।

আইপিএল আয়োজনে বেশ তৎপর (বিসিসিআই)। একইসাথে দীর্ঘদিন ধরে ঘরবন্দী সময় কাটানো ক্রিকেটারদের ট্রেনিংয়ের ব্যাবস্থা করতেও চেষ্টা করছেন তারা।

আহমেদাবাদ, ধরমশালা ও সংযুক্ত আরব আমিরাত এই তিন ভেন্যুকে তালিকায় রেখেছে বিসিসিআই।

বিসিসিআইয়ের অ্যাপেক্স কাউন্সিলের সভায় এই ভেন্যুগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

ভারতের অস্বাভাবিক করোনা পরিস্থিতিতে আইপিএল আয়োজন কিংবা ক্রিকেটারদের ট্রেনিংয়ে ফেরানোর সম্ভাবনা এই মুহুর্তে বেশ কঠিন।

তবে সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরের মধ্যে দুবাইয়ে আইপিএল আয়োজন করতে পারলে দীর্ঘদিন ধরে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ক্রিকেটাররা ফিরতে পারবেন ট্রেনিংয়েও।

এইসব বিষয় নিয়ে শুক্রবার বিসিসিআইয়ের অ্যাপেক্স কাউন্সিলের সভায় বিস্তর আলাপ হয়েছে। তবে এ ব্যাপারে আইপিএল গভর্নিং বডিই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।

পিটিআইকে বিসিসিআইয়ের এক কর্তা বলেন, “যদি আইপিএল সংযুক্ত আরব আমিরাতে হয় তবে ক্রিকেটাররা টুর্নামেন্টের আগে সেখানে প্র‍্যাক্টিস শুরু করবে। ওখানে ভালো সুযোগ সুবিধা রয়েছে। যখন ভারতে কোভিড-১৯ পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপের দিকে যাচ্ছে, তখন আইপিএল আয়োজনে সংযুক্ত আরব আমিরাতই প্রথম পছন্দ।”

ধরমশালা বা আহমেদাবাদের চেয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতকেই নিরাপদ মনে করছেন এই কর্তা।

“এছাড়া ক্রিকেটারদের ট্রেনিংয়ের জন্য অন্য বিকল্প হলো ধরমশালা বা আহমেদাবাদ। বায়ো-সুরক্ষিত হবে ট্রেনিং ক্যাম্প। যেহেতু ভারতে পরিস্থিতি খুব একটা ভালো নয়, সেহেতু সংযুক্ত আরব আমিরাতই নিরাপদ হবে।”

এর আগেও একবার সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইপিএল আয়োজন করা হয়েছিলো।

তখনকার সময়ে ভারতে নির্বাচন থাকার কারণে আইপিএলকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেয়া নিয়ে সংশয় থাকায় ২০১৪ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইপিএল আয়োজন হয়েছিলো।

বর্তমান সময়ে ফ্র‍্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টি-২০ লীগগুলোর মধ্যে পছন্দের শীর্ষে আইপিএল। অনেক ক্রিকেটাররাও আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের পাঠ চুকিয়ে আইপিএলের জন্য মনযোগী হয়েছিলেন।

জনপ্রিয় এই লীগ শেষ পর্যন্ত আয়োজন হবে কি না তা জানার জন্যচূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক