Connect with us

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ (আইপিএল)

‘আইপিএল বিশ্বকে পরিবর্তন করতে পারবেনা।’

প্রকাশিত

তারিখ

আইপিএল ভারতের মানুষের মুখে একটু হাসি ফোটাবে বলে মনে করেন হার্শা ভোগলে। ছবিঃ এনডিটিভি

আজ ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের শেখ আবু জায়েদ স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ আইপিএল নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক হার্শা ভোগলে।

তার মতে, করোনার অস্বস্তিকর কঠিন সময় ফেলে ভারতীয়দের মুখে একটু হলেও স্বস্তির হাসি ফেরাবে এবারের আইপিএল।

‘টাইমস অফ ইন্ডিয়ার’ জন্য লেখা এক কলামে নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে হার্শা ভোগলে জানান,‘সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে আইপিএল মানে এপ্রিল মাসে সোয়েটার (শীতের পোশাক) বিক্রির মত, জানুয়ারিতে আম খাওয়ার মত। তবে এটা কোন বিষয় না, নিয়মিত মৌসুম অথবা অন্য সময়ে হোক। আইপিএল হচ্ছে, আর এবারের আইপিএল হবে চাপের মধ্যে দুর্দান্ত দক্ষতার।’

জনপ্রিয় এই ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক মনে করেন, এবারের আসরে ব্যাটসম্যান-বোলার সমানে সমান থাকবে। সবমিলে এবারের আসর হবে একটু ভিন্ন রকম।

‘এটি এমন একটি আইপিএল হবে যেখানে ব্যাটসম্যান ও বোলাররা সমানে সমানে থাকবে। বিশ্বের সেরা ক্রিকেটাররা একত্রিত হবে এবং নিজেদের প্রতিভা মেলে ধরে নজর কেড়ে নিবে। ভক্তরা উদযাপন করবে, মন খারাপ করবে, বাকযুদ্ধ হবে। কেউ কেউ নিজের ঘোষণা দিবে। আবার কেউ এই সময়ে উন্মাদনা দেখানোকে স্রোতের বিপরীতে সাঁতার কাটা বলবে। তবে প্রতি গ্রীষ্মে এমন কিছুই ঘটে, এবারের আসর একটু ভিন্ন হবে।’ যোগ করেন হার্শা।

তিনি আরো লেখেন, ‘গত ৬ মাস অনেকের জন্যই তাদের জীবনের সবচেয়ে কঠিন সময় হয়ে এসেছে। অনিশ্চয়তা তাদের জড়িয়ে ধরেছে, আয় কমে গিয়েছে, অনেকে কাছের প্রিয়জন হারিয়েছে। অনেকের কাছে জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন সামনে চলে আসে এবং টিকে থাকা চ্যালেঞ্জিং হয়ে পড়ে।’

‘এটা এমন একটা সময় যা কেউ চায়নি, ডেকেও আনেনি। শারীরিকভাবে না হলেও মানুষকে একত্রিত করতে ভারতের কিছুটা আনন্দের দরকার, কিছুটা উদযাপনের দরকার। ভারতের কিছুটা হাসি দরকার, গৃহবন্দী সময়ে অস্বস্তি রাগান্বিত মানসিকতা পেছনে ফেলে একটি স্বস্তি দরকার। সংক্ষেপে বলতে গেলে এই কঠিন পরিবেশ থেকে মুক্তি দরকার।’

আইপিএল বিশ্বকে পরিবর্তন করতে না পারলেও মানুষের মুখে কিছুটা হাসি ফুটাতে পারবে বলে বিশ্বাস সময়ের অন্যতম সেরা এই ধারাভাষ্যকারের।

এ প্রসঙ্গে তিনি লেখেন, ‘আইপিএল বিশ্বকে পরিবর্তন করতে পারবেনা। এটি কেবলই একটা খেলা, আর খেলাধুলা ক্ষতিগ্রস্তদের উদ্ধার করতে পারেনা। কিন্তু এটি কিছুটা হাসি আনতে পারে। তিন ঘন্টা বা কখনো তার চেয়ে দীর্ঘ সময় আপনাকে অপ্রত্যাশিত ও আনন্দদায়ক খেলার মধ্যে মগ্ন করে।’

পুরোটা পড়ুন
কমেন্ট করুন/দেখুন

ট্রেন্ডিং টপিক